শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ০২:০৮:২৬ পিএম

কী ছিল খালেদা জিয়ার শেষ বার্তা?

রাজনীতি | শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১১:৩১:৩৫ পিএম

রায়ের আগের রাতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে নেতাদের একটি বিষয়েই বেশি গুরুত্ব দেন। তিনি শীর্ষ নেতাদের জানান, যে কোনো মূল্যে দলের ঐক্য ধরে রাখতে হবে। কোনোভাবেই ঐক্যে ফাটল ধরানো যাবে না। আর কেউ হঠকারী কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন না।

সম্মিলিতভাবে গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণভাবে দলের সব কর্মকাণ্ড পরিচালিত হবে। বৈঠকের পর একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেন। একইভাবে গতকালও আদালত থেকে কারাগারে যাওয়ার সময় আইনজীবী নেতাদের উদ্দেশে বলেন, নেতা-কর্মীরা যেন ঐক্য ধরে রাখেন সেটাই আমার শেষ কথা।

এ রায় রাজনৈতিক। ন্যায়বিচার পেলে উচ্চ আদালতে কিছুই হবে না। আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি রাজপথে গণতান্ত্রিক কর্মসূচি চালিয়ে যেতে হবে। বিএনপি চেয়ারপারসনের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া বাংলাদেশ প্রতিদিনকে এ তথ্য জানান।

এদিকে গতকাল বকশীবাজারের উদ্দেশে বাসা থেকে যাওয়ার সময় বেগম জিয়া স্বজনদের উদ্দেশে বলেন, ‘ধৈর্য ধারণ করো তোমরা। আল্লাহর ওপর ভরসা রাখো। আমি ফিরে আসবই ইনশা আল্লাহ।’ এর মধ্যে কেউ কেউ হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন।

এদিকে বিকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনেও বেগম জিয়ার শেষ নির্দেশনার কথা তুলে ধরেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি গণমাধ্যমকে জানান, বেগম জিয়া খুব স্পষ্ট করে নির্দেশ দিয়ে বলেছেন কোনোরকমের কোনো হঠকারী কর্মসূচি দেওয়া যাবে না। কোনোরকমের সহিংস কর্মসূচি দেওয়া যাবে না। সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণভাবে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে প্রতিবাদ করতে হবে, বিক্ষোভ করতে হবে। এই কথাটা বরাবরই বলেছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘সেজন্য খালেদা জিয়ার নির্দেশে আগামীকাল (আজ) জুমার নামাজের পর সারা দেশে জেলা-উপজেলায় বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে। সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ ও নিয়মতান্ত্রিক কর্মসূচি হবে। পরদিন শনিবারও সারা দেশে প্রতিবাদ কর্মসূচি হবে।’

এদিকে আদালত থেকে কারাগারে যাওয়ার সময়ও আইনজীবীদের উদ্দেশে বেগম জিয়া বলেন, আমার কিছুই হবে না। আপনারা আইনি লড়াই চালিয়ে যান। উচ্চ আদালত সুবিচার করলে আমি মুক্তি পাব। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। নিশ্চয়ই আল্লাহতায়ালা সবকিছু দেখছেন।

দল চলবে তারেক রহমানের নির্দেশে : বিএনপির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানই এখন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন। দল চলবে তারেক রহমানের নির্দেশে। স্থায়ী কমিটির সদস্যরা তারেক রহমানের মতামত নিয়েই দল পরিচলনা করবেন।

গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও এ বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, ‘দল চলবে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী।’ সে অনুযায়ী তারেক রহমান এখন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। একই কথা জানান স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমদও। সাংবাদিকদের জানান, তারেক রহমানের নির্দেশেই দল চলবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন