মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ ১১:০৩:৪৭ পিএম

কনডম বিষয়ে ১৩টি ধারণা আজই ভুলে যান

লাইফস্টাইল | রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৫:০৭:১১ পিএম

বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রত্যেক নারী-পুরুষের যৌনতা সম্পর্কে জ্ঞান থাকা অতি জরুরি। জন্মনিয়ন্ত্রণ এবং যৌনবাহিত রোগ থেকে দূরে থাকতে কনডম অতি প্রয়োজনীয় পণ্য। এর সম্পর্কে যাবতীয় জ্ঞান থাকা বাঞ্ছনীয়। অথচ যুগ যুগ ধরে বহু ভুল ধারণার প্রচলন ঘটে গেছে পৃথিবীজুড়ে। এখানে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন এমনই কিছু ভুল ধারণার কথা।

১. কনডম কিনতে বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর হতে হবে বলে অনেকের ধারণা। আসলে যেকোনো বয়সের মানুষ কনডম কিনতে পারেন। এমনকি কমিউনিটি কন্ট্রাসেপটিভ ক্লিনিক, সেক্সুয়াল হেলথ অ্যান্ড জেনিটুওরিনারি মেডিসিন (জিইউএম) ক্লিনিক ইত্যাদি সংস্থা থেকে বিনামূল্যে কনডম পেতে পারেন।

২. ওরাল সেক্সের সময় কনডম লাগে না বলে অনেকের বিশ্বাস। আসলে কনডম কেবল গর্ভধারণ রোধ করে তাই নয়, এটি এসটিআইএস থেকের রক্ষা করে। সঙ্গী-সঙ্গিনীর থেকে কোনো সংক্রমণ থাকলে তার জন্যে দারুণ প্রতিরোধী ব্যবস্থা হলো কনডম। যৌনাঙ্গের স্পর্শ যেখানে রয়েছে, সেখানেই কনডম প্রয়োজন।

৩. কনডম ব্যবহারের মেয়াদ নেই বলেও অনেকের ধারণা। এটা পুরোপুরি ভুল ধারণা। আসলে প্রত্যেক পণ্যেরই মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ রয়েছে। তবে কনডম ব্যবহার না করার চেয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ কনডম ব্যবহার করা ভালো। মেয়াদ চলে গেলে তা ব্যবহার আর নিরাপদ থাকে না।

৪. আরেকটি ভুল ধারণা হলো, কনডম স্পর্শকাতরতা নষ্ট করে দেয়। তাই অনেকে ব্যবহারে উৎসাহী থাকেন না। অথচ কনডম ছাড়া এবং কনডমসহ যৌনতার মধ্যে অনুভূতির কোনো পার্থক্য নেই।

৫. আবার অনেকে বলেন, সঙ্গিনী জন্মবিরতিকরণ পিল খেলে কনডমের প্রয়োজন পড়ে না। আসলে এসব পিল এসটিআইএস তো আর প্রতিরোধ করতে পারে না।

৬. একটির চেয়ে বেশি নিরাপদ দুটি কনডমের ব্যবহার। একটি কনডমই যথেষ্ট। এটাই নিয়ম। বরং দুটি কনডমের পারস্পরিক ঘর্ষণে ফেটে যেতে পারে। কাজেই দুর্ঘটনা ঘটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

৭. সঙ্গী নিরাপদ, কাজেই কনডমের প্রয়োজন বোধ করেন না অনেকেই। এ ক্ষেত্রে রোগের কথা ভুল গেলে চলবে না। এগুলো বলে কয়ে আসে না।

৮. কনডমের সঙ্গে চাইলেই যেকোনো লুব্রিকেন্ট ব্যবহার করা যায় বলে ধারণা অনেকের। আসলে মোটেও তা নয়। অধিকাংশ কনডমই লুব্রিকেটেড থাকে। যদি প্রয়োজন হয়ই, তবে পানি বা সিলিকন ভিত্তিক লুব্রিকেন্ট ব্যবহার করুন। তেল নির্ভর লুব্রিকেন্ট ভালো নয়।

৯. আসলে যৌনকর্মের মাঝামাঝি সময়ে কনডম ব্যবহার করা যেতে পারে- এমন ধারণা অনেকেরই রয়েছে। অথবা চূড়ান্ত মুহূর্তের আগে এটা ব্যবহার করার পরিকল্পনা করে নেন অনেকে। কিন্তু এ ক্ষেত্রেও দুর্ঘটনা ঘটে যায়।

১০. যৌনতা যদি দুইবার হয়, তবে কেবল প্রথমবারই কনডমের প্রয়োজন হয় বলে মনে করা হয়। এটাও ভুল ধারণা। যত বার সেক্স, ততবারই কনডম প্রয়োজন।

১১. অনেকে কনডম যেকোনো স্থানে সংরক্ষণ করেন। এটা আসলে নিরাপদ নয়। এদের চাপের ওপর রাখবেন না। তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ছোট ফুটো তৈরি হতে পারে।

১২. ল্যাটেক্স ব্যবহারে অ্যালার্জি হয় বলে অনেকের অভিযোগ। সাধারণ এটি অ্যালার্জির কারণ হয় না। তবে যদি সমস্যা সৃষ্টি করেই থাকে, তবে নন-ল্যাটেক্স কনডম ব্যবহার করতে পারেন। এগুলো পলিআইসোপ্রেন, পলিইউরেথেন কিংবা প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরি হয়।

১৩. কেবল নারী-পুরুষের যৌনতায় কনডম প্রয়োজন তা নয়। অনেকের ধারণা এ জিনিস কেবল গর্ভধারণ রোধেই ব্যবহৃত হয়। আসলে এটা ভুল। রোগ থেকেও বাঁচতে এর প্রয়োজন।
সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন