বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:৫২:৩৩ পিএম

২৪ দিনে ৬০০ কি.মি সাইকেলে পাড়ি দিয়ে খুঁজে পেলেন হারানো স্ত্রীকে

আন্তর্জাতিক | বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১১:২২:২০ পিএম

কথায় আছে চেষ্টার কোনও বিকল্প নেই। অক্লান্ত প্রচেষ্টার মাধ্যমে সেই প্রবাদকেই সার্থকতা দিলেন ভারতের ঝাড়খণ্ডের এক শ্রমিক। ৪২ বছরের মনোহরবাবু মুসাবনি বালিগোদা গ্রামের বাসিন্দা। ওড়িশায় দিনমজুরের কাজ করেন তিনি।

জানা গিয়েছে, বিগত ২৪ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন ঝাড়খণ্ডের মনোহর নায়েকের মানসিক ভারসাম্যহীন স্ত্রী। তার খোঁজে সাইকেলে করে ৬০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে অবশেষে সেই স্ত্রীকেই ফিরে পেলেন পশ্চিমবঙ্গে। মকরসংক্রান্তি উপলক্ষে কুমরাসোল গ্রামে বাপের বাড়িতে গিয়েছিলেন তার স্ত্রী অনিতা। গত ১৪ জানুয়ারি সেখান থেকেই তিনি নিখোঁজ হয়ে যান।

মনোহরবাবু জানান, দু'দিন পরেও অনিতার কোনও খোঁজ না পেয়ে মুসাবনি এবং দামুরিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। কিন্তু পুলিশও স্ত্রীর কোন খোঁজ না দেওয়ায় নিজেই স্ত্রীকে খোঁজার সিদ্ধান্ত নেন মনোহরবাবু। তারপর টানা ২৪ দিন সাইকেলে করে রোজ ২৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতেন স্ত্রীর খোঁজে।

২৪ দিনে মোট ৬৫ টি গ্রামে যান তিনি। কিন্তু এত কষ্ট করেও স্ত্রী অনিতার কোন খবর পাননি মনোহরবাবু। পাশাপাশি স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন ও ঠিক করে কথা বলতে পারেন না। ফলে বাড়তে থাকে দুশ্চিন্তা। কিন্তু হাল ছাড়েননি মনোহরবাবু।

স্থানীয় একটি সংবাদপত্রের নিখোঁজ কলামে অনিতার ছবি দেন তিনি। তারপরই তার অক্লান্ত চেষ্টার ফল পান মনোহরবাবু। সংবাদপত্রে ছবি দেখে খড়্গপুরে রাস্তার ধারের একটি খাবারের দোকানে বসে থাকা অনিতাকে চিহ্নিত করেন কয়েকজন সহৃদয় ব্যক্তি। সঙ্গে সঙ্গে খড়্গপুর থানায় খবর দেন তারা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নিখোঁজ অনিতার ছবি হোয়াটস অ্যাপে পাঠানো হয় মুসাবনি থানায়। সেখানকার পুলিশ খবর দেন মনোহরকে। তাকে বলা হয় স্ত্রীর পরিচয়পত্র নিয়ে আসতে। ১০ ফেব্রুয়ারি অনিতার সঙ্গে মনোহরবাবুর পুর্নমিলন হয়। পরের দিন একসঙ্গে ঘরে ফিরে যান তারা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন