বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ ০৯:০৫:৫৭ পিএম

রেকর্ড গড়া ম্যাচে একটি কারণেই হেরেছে বাংলাদেশ!

খেলাধুলা | বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৮:৪৩:৪৯ পিএম

রেকর্ড গড়া ম্যাচে একটি কারণেই হারলেন বাংলাদেশ। কারণটি হলো, ছন্দময় ব্যাটিংয়ের পর হতাশার বোলিংয়েই হেরেছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচটি ছয় উইকেটে জিতে নিল শ্রীলঙ্কা। এদিন বাংলাদেশের দেয়া ১৯৪ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৬.৪ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় সফরকারীরা।

টি-২০ তে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ:
নিজেদের টুয়েন্টি টুয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের নতুন রেকর্ড গড়লো বাংলাদেশ। চলমান টুয়েন্টি টুয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে আজ শ্রীলংকার বিপক্ষে ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৯৩ রান করে নতুন এ রেকর্ড গড়ে টাইগাররা।

লঙ্কান ওপেনার কুসল মেন্ডিস ২৭ বল খেলে ৫৩ রান করেন। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটি তার প্রথম সেঞ্চুরি। অপর ওপেনার দানুশকা গুনাথিলাকা ১৫ বল খেলে করেন ৩০ রান। ২৪ বল খেলে ৪২ রান করে অপরাজিত থাকেন দাসুন শানাকা। ১৮ বল খেলে ৩৯ রান করে অপরাজিত থাকেন থিসারা পেরেরা। বাংলাদেশের পক্ষে নাজমুল ইসলাম অপু ২টি, রুবেল হোসেন ১টি ও আফিফ হোসেন ১টি করে উইকেট নেন।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটি বাংলাদেশের দলীয় সর্বোচ্চ ইনিংস। এর আগে সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল ১৯০ রানের।

বাংলাদেশের পক্ষে আজ হাফ সেঞ্চুরি করেন সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিম। ৩২ বল খেলে ৫১ রান করে আউট হন সৌম্য সরকার। টি-টোয়েন্টিতে এটি তার প্রথম হাফ সেঞ্চুরি। অন্যদিকে, ৪৪ বল খেলে ৬৬ রান করে অপরাজিত থাকেন মুশফিকুর রহিম। টি-টোয়েন্টিতে এটি তার দ্বিতীয় হাফ সেঞ্চুরি। ব্যক্তিগত অর্ধশত না করতে পারলেও দারুণ ইনিংস খেলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৩১ বল খেলে ৪৩ রান করে আউট হন তিনি। শ্রীলঙ্কার পক্ষে দানুশকা গুনাথিলাকা ১টি, জীভন মেন্ডিস ২টি ও থিসারা পেরেরা ১টি করে উইকেট নেন।

শ্রীলঙ্কা ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতে দারুণ খেলতে থাকে। তাদের ওপেনিং জুটি ভাঙে দলীয় ৫৩ রানে। অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা বাঁ-হাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপুর বলে স্ট্যাম্পিং হন দানুশকা গুনাথিলাকা। ১৫ বল খেলে ৩০ রান করেন তিনি।

দলীয় ৯০ রানে আফিফ হোসেনের বলে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ হন কুসল মেন্ডিস। ফেরার আগে ২৭ বল খেলে ৫৩ রান করেন তিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটি মেন্ডিসের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি।

দলীয় ৯২ রানে নাজমুল ইসলাম অপুর বলে আফিফ হোসেনের হাতে ধরা পড়েন উপুল থারাঙ্গা। ইনিংসের ১২তম ওভারে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের হাতে ক্যাচ বানিয়ে নিরোশান ডিকওয়েলাকে ফিরিয়ে দিলেন তিনি। নয় বল খেলে ১১ রান করলেন ডিকওয়েলা। সিলেটে সিরিজের পরবর্তী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ছয় উইকেটে জয়ী শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ ইনিংস: ১৯৩/৫ (২০ ওভার)

(জাকির হাসান ১০, সৌম্য সরকার ৫১, মুশফিকুর রহিম ৬৬*, আফিফ হোসেন ০, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৪৩, সাব্বির রহমান ১, আরিফুল হক ১*; শিহান মাদুশানকা ০/৩৯, দানুশকা গুনাথিলাকা ১/১৬, ইসুরু উদানা ১/৪৫, থিসারা পেরেরা ১/৩৬, আকিলা ধনঞ্জয়া ০/৩২, জীভন মেন্ডিস ২/২১)।

শ্রীলঙ্কা ইনিংস: ১৯৪/৪ (১৬.৪ ওভার)

(কুসল মেন্ডিস ৫৩, দানুশকা গুনাথিলাকা ৩০, উপুল থারাঙ্গা ৪, দাসুন শানাকা ৪২*, নিরোশান ডিকওয়েলা ১১, থিসারা পেরেরা ৩৯*; নাজমুল ইসলাম ২/২৫, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ০/৩৩, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ০/২৩, রুবেল হোসেন ১/৫২, মোস্তাফিজুর রহমান ০/৩২, আফিফ হোসেন ১/২৬)।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন