শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮ ১১:৪৮:৪৮ এএম

‘রাজিয়া আত্মহত্যা করতে পারে না, এটি হত্যা’

জাতীয় | শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৭:৫৭:৩৯ এএম

সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার পুত্রবধূর রহহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় নিহতের চাচা জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ‘রাজিয়া একটু চাপা স্বভাবের ছিল। তাই স্বামীর বাড়ি থেকে নির্যাতনের কথা সে কাউকে বলেনি। তবে রাজিয়া আত্মহত্যা করতে পারে না, এটি হত্যা।’

রাজিয়ার লাশ গোড়ান দক্ষিণ বনশ্রী বাবা ইকবাল হোসেনের বাসায় নেওয়া হয়। স্থানীয় কবরস্থানে রাজিয়াকে দাফন করা হবে বলেও তিনি জানান।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে বৃহস্পতিবার নিহত রাজিয়ার লাশ বুঝে নেওয়ার আগে এমন ভাবেই বলছিলেন তিনি।

জাহাঙ্গীর বলেন, ‘১১ মাস আগে আবির পাটোয়ারী সঙ্গে রাজিয়ার বিয়ে হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে রাজিয়া তুলে দেওয়া না হলেও খিলগাঁও উত্তর গোড়ানে শ্বশুর বাড়িতেই থাকত সে। এ মাসেই আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠানের হওয়ার কথা ছিল।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার পুত্রবধূ রাজিয়া সুলতানার মৃত্যু রহস্যজনক। তার গলা থেকে টিস্যু ও ভিসেরা সংগ্রহ করা হয়েছে। সংগ্রহ করা টিস্যু ও ভিসেরা পরীক্ষায় জন্য পাঠানো হবে। রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যু কারণ জানা যাবে।’

এদিকে ময়না তদন্তের পরে রাজিয়া লাশ তার চাচা জাহাঙ্গীর আলমকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে খিলগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মশিউর রহমান জানান, রাজিয়ার মৃত্যু ঘটনায় তার বাবা ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেছে। এ মামলায় আটক রাজিয়া সুলতানার স্বামী আবির ও তার বন্ধু অভিজিৎকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

জানা যায়, ১১ মাস আগে পারিবারিকভাবে সাবেক সিনিয়র এএসপি আমির হোসেন পাটোয়ারীর ছেলে আবির পাটোয়ারীর সঙ্গে রাজিয়ার বিয়ে হয়। ফেব্রুয়ারি মাসের ২১, ২২ ও ২৩ তারিখে তাদের বিয়ে পরবর্তী অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল।

প্রসঙ্গত, এর আগে বুধবার রাতে খিলগাঁও উত্তর গোড়ানের ১৮৩ নম্বর তার শ্বশুরবাড়ি থেকে রাজিয়ার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন