সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮ ০১:৩৫:২২ পিএম

বাংলাদেশে এসে দুর্দান্ত খেলছেন সালমান বাট

খেলাধুলা | শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১২:৩৭:০২ পিএম

তার ক্রিকেট সামর্থ্য নিয়ে সংশয় ছিলো না কারো। সালমান বাট তা প্রমাণও করছিলেন। তার হাতে যখন পাকিস্তানের নেতৃত্ব পড়ল, নতুন শুরুর স্বপ্ন দেখছিলেন সাবেকদের অনেকে। কিন্তু নতুন শুরু নয়, সালমান বাট বরং পাকিস্তান ক্রিকেটকে ফেলে দিলেন কলঙ্কের অন্ধকারে। বাংলাদেশে এসে দুর্দান্ত খেলছেন সালমান বাট।

২০১০ সালে তরুণ মোহাম্মদ আমির ও মোহাম্মদ আসিফকে নিয়ে ফিক্সিং কলঙ্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন। যেটা শুধু ওই তিনজনকে নয়, পুরো পাকিস্তান ক্রিকেটকেই বড্ড ভুগিয়েছে। তিনজনই জেল খেটেছেন, নিষিদ্ধ হয়েছেন। জীবন থেকে কতো কিছুই হারিয়েছেন বাট। কিন্তু তার ক্রিকেট হারায়নি।

ক্রিকেট হারায়নি নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা মোহাম্মদ আমিরের। সেটা নিয়ে কম ‘গণ্ডগোল’ হয়নি পাকিস্তান ক্রিকেটে। তবে আমিরের বয়স কম বলে ক্ষোভ মুছে ফেলেছেন অনেকেই। কিন্তু সালমান বাট, মোহাম্মদ আসিফদের মন থেকে ক্ষমা করতে পারেননি পাকিস্তানিরা। ক্ষমা না করলে কী হবে, কাছে ডেকে যে বসাতেই হচ্ছে! বিশেষ করে সালমান বাটকে।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরে ব্যাট হাতে নিয়মিত রান করে যাচ্ছেন সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক। ইদানিং সালমানের ব্যাট এতোটাই ধারাবাহিক যে তাকে আবারও জাতীয় দলে ডেকে নেওয়ার চিন্তা করছেন খোদ পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক ইনজামাম-উল-হক। পাকিস্তান দলের একাধিক সিনিয়র ক্রিকেটার আপত্তি না তুললে হয়তো এতোদিনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তনও হয়ে যেতো বাটের!

কিন্তু কথা হচ্ছে ধারাবাহিক ভালো খেলে গেলে আপত্তি তুলে সালমান বাটকে আর কতোদিন জাতীয় দলে ঢুকতে দিবেন না সিনিয়র ক্রিকেটাররা। মোহাম্মদ আমিরের মতো দ্বিমত নিয়েই হয়তো পাকিস্তান দলে আবারও দেখা যাবে সালমান বাটকে! প্রধান নির্বাচকের যে ভালোই নজর কেড়েছেন বাট।

এখন পাকিস্তান দলের সিনিয়র কয়েকজনের নজর কাড়তে পারলেই হয়! বাংলাদেশে এসে সালমান বাট যা করছেন সেটা সিনিয়রদের নজরে পড়ার মতোই। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ খেলতে সালমান বাটের সঙ্গে চুক্তি করেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। মোহামেডানের হয়ে এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচ খেলেছেন সালমান বাট, যার মধ্যে দুটিতেই দারুণ ব্যাটিং উপহার দিয়েছেন। বাংলাদেশে এসে এমন ব্যাটিংয়ে পাকিস্তান দলের দরজা খুলেও যেতে পারে সালমান বাটের সামনে।

ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে করেছিলেন ৬২ রান। তারপর রুপগঞ্জের বিপক্ষে ২১ রানে আউট হলেও শেখ জামালের বিপক্ষে ৮১ রানে দারুণ এক ইনিংস উপহার দিয়েছেন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান। ৭৫ বল খেলে ১২টি চারের সাহায্যে এই রান করেছেন তিনি। মোহামেডানও আজ শেখ জামালের বিপক্ষে জিতেছে পাঁচ উইকেটে। প্রথমে ব্যাট করে ২৮৭ রান তুলেছিল শেখ জামাল। পরে বাট ও শাসছুর রহমানের (১২৩) ব্যাটে ৪৫.১ ওভারে পাঁচ উইকেট হাতে রেখে জয়ের জন্য ২৯০ রান তুলে ফেলে মোহামেডান।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন