রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ ০২:০৫:০৫ এএম

শাহজালালে যাত্রীর জুতায় ১৬ লাখ টাকা

নগর জীবন | শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০২:৫৮:০৩ পিএম

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৭০ হাজার সৌদি রিয়াল ও ২ হাজার ২০০ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিতসহ যাত্রী আটক হয়েছেন। জব্দ হওয়া বৈদেশিক মুদ্রা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১৬ লাখ।

ওই যাত্রীর নাম কামরুল ইসলাম। গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ সদর।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) ড. মঈনুল খান।

ড. মঈনুল খান বলেন, শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে বিমানবন্দরে বহির্গমন যাত্রী কামরুল ইসলামরে কাছ থেকে ঘোষণা বহির্ভূত ও বিশেষভাবে লুকায়িত বিপুল পরিমাণ সৌদি রিয়াল ও মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত জব্দ করা হয়েছে। কামরুল ওডি ১৬৫ যোগে ঢাকা থেকে মালয়েশিয়া যাচ্ছিলেন। ইমিগ্রেশন পরবর্তী ৮নং বোর্ডিং গেইটের মাধ্যমে বোর্ডিং সম্পন্ন করলে শুল্ক গোয়েন্দার দল তার কাছে কোন বৈদেশিক মুদ্রা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করেন। পরে যাত্রীর দেহ তল্লাশি করা হয়, তার জুতার ভেতর বিশেষভাবে কাগজে মুড়িয়ে লুকায়িত অবস্থায় বৈদেশিক মুদ্রা পাওয়া যায়।

তিনি বলেন, পাসপোর্ট চেক করে দেখা যায়, কামরুল ইসলাম চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে ৪ বার এবং ২০১৭ সালে ৩৩ বার বিদেশ গমন করেছেন। তিনি বাংলাদেশ থেকে মুদ্রা পাচার করে মালয়েশিয়ায় বিক্রি করেন। দেশে আসার সময় ল্যাপটপ, কসমেটিকস, সিগারেট ইত্যাদি নিয়ে আসার উদ্দেশে এসব মুদ্রা অবৈধভাবে বহন করছিলেন। এর আগে তিনি এভাবে ১০/১১ বার মুদ্রা বহন করেছিলেন বলে স্বীকার করেছেন।

তিনি আরো বলেন, যাত্রীকে ব্যাগেজ কাউন্টারে এনে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে তার পরিহিত জুতার ভেতর বিশেষভাবে কাগজে মুড়িয়ে লুকায়িত অবস্থায় ৭০ হাজার সৌদি রিয়াল ও ২ হাজার ২ শত মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত জব্দ করা হয়। বাংলাদেশি টাকায় এসব মুদ্রার পরিমাণ প্রায় ১৬ লাখ। এসব মুদ্রা তিনি কোন প্রকার ঘোষণা ছাড়াই বহন করছিলেন।

ওই যাত্রীকে শুল্ক আইন ও মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে গ্রেপ্তার হয়েছে। একইসঙ্গে অন্যান্য আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন