বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ ০৪:৪১:৪৬ পিএম

মধুর প্রতিশোধ নিলো রিয়াল

খেলাধুলা | সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১০:০৬:৩৫ এএম

প্রথমার্ধে দুই গোল খেয়ে রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে আবারো হারের শঙ্কা জেগেছিল। তবে দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে লা লিগার প্রথম পর্বের পরাজয়ের মধুর প্রতিশোধ নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ।

রোববার রাতে রিয়ালের ৫-৩ ব্যবধানে রোমাঞ্চকর জয়ে জোড়া গোল করেন মার্কো আসেনসিও। জিনেদিন জিদানের দলের অন্য তিন গোলদাতা সের্হিও রামোস, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও করিম বেনজেমা।

সেপ্টেম্বরে সান্তিয়াগো বার্নাব্যু প্রতিযোগিতার গতবারের চ্যাম্পিয়নদের একমাত্র গোলে হারিয়েছিল বেতিস।

প্রতিপক্ষের মাঠে একাদশ মিনিটে ম্যাচে প্রথম সুযোগ পেয়েই এগিয়ে যায় রিয়াল। রোনালদোর জোরালো শট পাঞ্চ করে ফেরান গোলরক্ষক আন্তোনিও আদান; কিন্তু বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি বল হেডে জালে জড়ান আসেনসিও।

২৫ মিনিটে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড লোরেনের দূরপাল্লার শট একটুর জন্যে লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে সে যাত্রায় বেঁচে যায় রিয়াল। দুই মিনিট পর তার স্বদেশি মিডফিল্ডার হোয়াকিনের প্রচেষ্টা রুখে রিয়ালের রক্ষাকর্তা কেইলর নাভাস।

একের পর এক আক্রমণ করতে থাকা স্বাগতিকদের বেশিক্ষণ আটকে রাখতে পারেনি রিয়াল। চার মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল খেয়ে বসে তারা। এর খানিক আগে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন মার্সেলো।

৩৩ মিনিটে হেডে বেতিসকে সমতায় ফেরান ফরাসি ডিফেন্ডার আইসা মঁদি। প্রতিপক্ষের আরেক ডিফেন্ডার জুনিয়র ফিরপোর জোরালো শট ঝাঁপিয়ে ধরতে ব্যর্থ হন নাভাস। বল গোলমুখে স্প্যানিশ ডিফেন্ডার নাচো ফের্নান্দেসের পায়ে লেগে ভেতরে ঢুকে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে লুকাস ভাসকেসের কর্নারে সের্হিও রামোসের দারুণ হেডে সমতায় ফেরে রিয়াল।

পাঁচ মিনিট পর গ্যারেথ বেলের কোনাকুনি শট পা বাড়িয়ে ঠেকিয়ে দেন আদান। পরের মিনিটে ওয়েলসের এই উইঙ্গারের আরেকটি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। তাতে কর্নার না দেওয়ার সিদ্ধান্তে প্রতিবাদ জানিয়ে হলুদ কার্ড দেখতে হয় বেলকে।

৫৯ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে আবারো এগিয়ে যায় রিয়াল। এক ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে ডান দিক দিয়ে এগিয়ে যাওয়া দানি কারভাহালের বাড়ানো ক্রস ডি-বক্সে পেয়ে বাঁ-পায়ের শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আসেনসিও।

ছয় মিনিট পর ব্যবধান বাড়িয়ে জয়ের পথ প্রশস্ত করেন রোনালদো। কাসেমিরোর উঁচু করে বাড়ানো বল ডি-বক্সে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরালো শটে আসরে নিজের দ্বাদশ গোলটি করেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

কিছুক্ষণ পর স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ফাবিয়ান রুইসের বাঁকানো দূরপাল্লার শট অসাধারণ নৈপুণ্যে ঝাঁপিয়ে ঠেকান নাভাস। ৭৩ মিনিটে হোয়াকিনের প্রচেষ্টা অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

৮৫ মিনিটে বাঁ-দিক থেকে জুনিয়র ফিরপোর দারুণ ক্রস ছয় গজ বক্সে পেয়ে ব্যবধান কমিয়ে লড়াই নতুন করে জমিয়ে তোলেন বদলি ফরোয়ার্ড সের্হিও লেওন।

তবে যোগ করা সময়ে ভাসকেসের পাস ধরে বল জালে পাঠিয়ে সব অনিশ্চয়তার ইতি টানেন দুই মিনিট আগেই রোনালদোর বদলি নামা ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন