সোমবার, ২০ আগস্ট ২০১৮ ১০:৪৪:৪১ এএম

‘মন্ত্রী-সচিব প্রশ্নফাঁস করেনি, তারা সরে যাবে কেন’

জাতীয় | সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১০:০৮:২০ পিএম

দেশবাসীর জন্য তথ্য প্রযুক্তির ‘ফোরজি’, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটালাইট উৎক্ষেপণ’ ও ‘কার্গো বিমানের উপর ব্রিটেনের নিষেদ্ধাজ্ঞা প্রত্যাহার’- এই ‘তিন সুখবর’ দিলের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সম্প্রতি ভ্যাটিকান সিটি ও ইতালি সফর নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, খালেদা জিয়ার সাজা নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে কেউ ফোন করেননি, জানতেও চাননি তিনি কেমন আছেন।

মিয়ানমার তালবাহানা করছে, এটা তাদের চরিত্র উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা তো মানুষ, তাদের কিভাবে ঠেলে ফেলে দেব? আগে ৮ হাজার রোহিঙ্গা যাক। দেখি তাদের সঙ্গে কী ব্যবহার করে মিয়ানমার।

প্রশ্নফাঁস নতুন কিছু না, যুগযুগ ধরে হচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রী আর সচিব গিয়ে তো প্রশ্নফাঁস করেনি, তাদের কেন সরে যেতে হবে, যারা করেছে তাদের ধরিয়ে দেন, ব্যবস্থা নেব।

তিনি বলেন, প্রশ্নফাঁস হচ্ছে ২০ মিনিট বা এক ঘন্টা আগে, এতো ট্যালেন্ট কোন ছাত্র যে এই সময়ের মধ্যে পড়ে মুখস্ত করে লিখবে

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচন ঠেকাতে পারেনি, এবারও সময় মতো নির্বাচন হবে, কেউ ঠেকাতে পারবে না। বিএনপি আসুক না আসুক নির্বাচন সময় মতো হবে, কেউ আটকাতে পারবে না। বিএনপি নির্বাচনে না আসলে আমাদের কিছু করার নেই। নির্বাচন করা না করা দলীয় সিদ্ধান্ত।

চালের দাম নিয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, চালের দাম সিন্ডিকেট বাড়ায় আবার মিডিয়ার প্রচারের কারণেও বাড়ে।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বিএনপির কাছের লোকেরাই মামলা দিয়েছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, তার রায় দিয়েছেন আদালত। তারেক রহমানের দুর্নীতি সর্বজনবিদিত। আদালতের রায়ে সরকারের কিছু করার নেই। বিএনপির নেতৃত্বের কি এতোই দৈন্যদশা যে অন্য কাউকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করতে পারত না। বিএনপিতে কি একটা নেতাও দেশে নেই, যাকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা যায়।

পোপ ফ্রান্সিসের বৈঠকের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থী সঙ্কট অবসানে মিয়ানমারের উপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রাখতে ক্যাথলিক ধর্মগুরুকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

লিখিত বক্তব্যে জাতিসংঘের কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফএডি) কার্যক্রম এবং গভর্নিং কাউন্সিলের সভায় অংশগ্রহণের বিস্তারিত তুলে ধরেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে ভাষার মাসে বাহান্নোর ভাষাশহীদদের স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

গণভবনের ব্যাংকোয়েট হলে সংবাদ সম্মেলনে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী। তার সঙ্গে রয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন