রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ ০২:০৫:৪১ এএম

চলচ্চিত্র নিয়ে চিন্তিত চম্পা যা বললেন

বিনোদন | মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০১:৩৬:২৭ এএম

মন ভালো নেই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় মুখ চম্পার। বেশ কিছুদিন ধরেই কিছু বিষয় নিয়ে ভাবছেন তিনি। আর তা হচ্ছে বর্তমান সময়ের চলচ্চিত্রশিল্পের অবস্থা ও প্রাসঙ্গিক নানা বিষয়। তিনি মনে করছেন সামনে কি হবে আমাদের চলচ্চিত্রশিল্পের।

বিষয়টি খোলাসাভাবে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, দেখুন, এখন যেসব ছবির প্রস্তাব পাচ্ছি সেগুলোর মধ্যে বেশির ভাগেরই গল্প বা চরিত্র আমাকে টানছে না। আমি যে ধরনের শিল্পী সেই ধরনের চরিত্র না পেলে পর্দায় আমাকে দেখে দর্শকরা খুশি হবেন না। এটা ভাবতেই খারাপ লাগে।

চম্পা বলেন, কয়েকদিন ধরেই আমি ভাবছি যে, ভালো কাজ করার সময় এখন আমার। অভিনয় করার মতো জায়গা না থাকলে ছবিতে অভিনয় করে কি লাভ? বিষয়টি নিয়ে বেশ চিন্তিত আমি। অনেক সময় ভাবি আমি যেসব চরিত্র কাজ করার উপযুক্ত না সেসব চরিত্র না করে ছবি থেকে এবার বিদায় নেব।

তিনি আরোও বলেন, আবার মাঝে মাঝে খুব আশায় থাকি আজ না হোক আগামীকাল মনের মতো একটি চরিত্রে কাজ করা হয়তো হবে আমার। তাই শিল্পী হিসেবে প্রতিনিয়ত ভালো গল্পের চরিত্রে অভিনয় করার জন্য অপেক্ষায় থাকি।

‘পদ্মা নদীর মাঝি’, ‘হাঙর নদী গ্রেনেড’, ‘লাল দরজা’, ‘টার্গেট’, ‘তিনকন্যা’, ‘লটারী’, ‘বিরহ ব্যথা’, ‘নিষ্পাপ’, ‘সহযাত্রী’, ‘ভেজা চোখ’, ‘বাপ বেটা ৪২০’, ‘নীতিবান’, ‘কাশেম মালার প্রেম’, ‘প্রেম দিওয়ানা’, ‘শঙ্খনীল কারাগার’, ‘অন্যজীবন’, ‘মনের মানুষ’সহ আরও অনেক জনপ্রিয় ছবির অভিনেত্রী চম্পা।

প্রয়াত পরিচালক শিবলী সাদিক পরিচালিত সুপারহিট সিনেমা ‘তিনকন্যা’ দিয়ে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এই অভিনেত্রীর চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। এছাড়া গৌতম ঘোষ পরিচালিত ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ ছবিটি তাকে আরো বেশি খ্যাতি এনে দেয়।

এ ছবিটি দুই বাংলায় মুক্তি পাওয়ার পর কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রশংসিত হওয়ার পাশাপাশি অর্জন করে ইউনেসকো পুরস্কার। সবশেষ চম্পা অভিনীত ‘ইন্সপেক্টর নটি কে’ ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। সামনে নতুন আরো দুটি ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার। ছবি দুটি হচ্ছে ইদ্রিস হায়দারের ‘নীল ফড়িং’ এবং চিত্রনায়ক আলমগীরের পরিচালনায় ‘একটি সিনেমার গল্প’।

ছবি দুটির বিষয়ে জানতে চাইলে চম্পা বলেন, দুটি ছবিতেই কাজ করে ভালো লেগেছে। ‘নীল ফড়িং’ খুব শিগগিরই সেন্সরে যাচ্ছে বলে জেনেছি। এছাড়া নব্বইয়ের দশকে আলমগীর ভাইয়ের নির্দেশনায় ‘নিষ্পাপ’ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছিলাম। তিনি বড়মাপের অভিনেতা ও ভালো নির্মাতা। অনেকদিন পর তার ছবিতে কাজ করলাম। এ ছবির গল্পেও চমক রয়েছে।

আশা করি, ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবিটিও দর্শক পছন্দ করবেন। আলমগীরের নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা ‘আইকন এন্টারটেইনমেন্ট’-এর ব্যানারে পয়লা বৈশাখে ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। এ ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন আলমগীর, আরিফিন শুভ, কলকাতার ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তসহ অনেকে। এমজমিন

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন