মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৬:১৪:১৩ এএম

চেলসির আতঙ্ক নাকি মেসি!

খেলাধুলা | মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৮:০৫:৫২ পিএম

চেলসির আতঙ্ক নাকি মেসি! টেস্ট ক্রিকেটে ৯৯.৯৪ ব্যাটিং গড় নিয়ে থেমে যেতে হয়েছিল ক্রিকেটের কিংবদন্তি স্যার ডন ব্র্যাডম্যান-কে। টেনিসে উইম্বলডনও কখনও জেতা হয়নি ইভান লেন্ডল-এর। ফুটবলেও কি সে রকম ভাবেই লিওনেল মেসি গোলহীন থেকে যাবেন চেলসির বিরুদ্ধে?

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে আজ মঙ্গলবার রাতে চেলসির মুখোমুখি হচ্ছে বার্সেলোনা। আর সেই মহারণের আগে এই প্রশ্নটাই ঘুরছে ফুটবল বিশ্বে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সাতানব্বই গোল হয়ে গিয়েছে ফুটবল জাদুগর মেসির। কিন্তু ‘ব্লু আর্মি’-র বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত আটটি ম্যাচে ৬৫৫ মিনিট খেলেও কোনও গোল করতে পারেননি তিনি। শেষ বার যখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এই দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল, ২০১২ সালে, সেই সেমিফাইনাল ম্যাচের দ্বিতীয় পর্বে ঘরের মাঠ কাম্প ন্যু-তে পেনাল্টি মিস করে চেলসিকে বিজয়োৎসব করতে দেখেছিলেন মেসি। তা হলে এ বারও কি সেই চেলসি-ফাঁড়া কাটবে না?

সাংবাদিক সম্মেলনে প্রশ্ন শুনে হেসে ফেলেন চেলসি কোচ আন্তোনিও কন্তে। ফুটবলার জীবনে জুভেন্তাসের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা চেলসির ইতালিয়ান কোচ বলে দেন, ‘‘হয়তো এ বারও রেকর্ডটা ভাঙবে না। কিন্তু মনে রাখবেন, বিশ্বের সেরা ফুটবলার এবং অন্যতম সেরা টিমের বিরুদ্ধে ম্যাচটা খেলতে যাচ্ছি। আর মেসিকে নিষ্প্রভ করতে গেলে কোনও এক জনকে দিয়ে মার্কিং করিয়ে কাজ নেই। এ রকম পরিস্থিতিতে ও আরও ভয়ঙ্কর। মেসিকে আটকাতে গেলে পুরো দলকে দায়িত্ব নিতে হবে। ’’ লা লিগায় এ বার ২০ গোল করে গোলদাতাদের শীর্ষ স্থানে মেসি। সঙ্গে ১১ গোল করিয়েছেন। যার অর্ধেকটাই লুইস সুয়ারেস-কে দিয়ে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এ পর্যন্ত ১২ বার মুখোমুখি হয়েছে ইউরোপের এই দুই দল। সেখানেও ৪-৩ এগিয়ে চেলসি। ড্র পাঁচবার। যদিও এই পরিসংখ্যানকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে নারাজ বার্সেলোনার প্রাক্তন ব্রাজিলীয় ফুটবলার রিভাল্ডো। বলছেন, ‘‘এ বার চেলসির চেয়ে অনেক ভাল দল বার্সেলোনা। তাই ফেভারিট মেসি-সুয়ারেস-রা। ’’ লন্ডনে পা দেওয়ার আগে ক্লাবের প্রাক্তন ফুটবলারের এই ভবিষ্যদ্বাণী শুনে চনমনে বার্সালোনার মাঝমাঠের গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার ইভান রাকিতিচ। অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলতে হিথরো বিমানবন্দরে পা দিয়েই তিনি বলছেন, ‘‘ম্যাচের গতিটা নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে আমাদের মাঝমাঠকে। মোদ্দা কথা, ওদের চাপে রাখতে হবে। ওদের দলে এমন কিছু ফুটবলার রয়েছে, যারা জানে লা লিগা এবং বার্সেলোনা-র গতিপ্রকৃতি। ’’

জবাবে চেলসির স্প্যানিশ ফুটবলার ফ্যাব্রেগাস বলছেন, ‘‘জানি, ওরা শুরুতেই ধাক্কা দেবে। মেসিদের সেই আক্রমণের ঝড়টা সামলে দিতে পারলেই, ম্যাচটা আমাদের দিকে চলে আসবে। আর আসল লোক তো আন্দ্রে ইনিয়েস্তা। ওকে ধরে নিতে পারলে বার্সেলোনা রক্ষণের ফাঁকা জায়গাগুলো আমরা কাজে লাগাতে পারব। ’’

চোটের কারণে এই ম্যাচে চেলসি পাচ্ছে না ডেভিড লুইস এবং তিমোউ বাকায়োকো-কে। অনিশ্চিত রস বার্কলেও। তবে চোট কাটিয়ে দলে ফেরা আর এক ফুটবলার মার্কোস আলোন্সো-র সঙ্গে এ দিন চেলসির অনুশীলনে দেখা গিয়েছে। অন্য দিকে, বার্সেলোনা শিবিরে চোট-সমস্যা না থাকলেও ম্যাচ সাসপেনশনে থাকায় নেই রাইট ব্যাক নেলসন সেমেদো।

তারকাখচিত এই ম্যাচে চিন্তিত দু’দলের রক্ষণ ভাগের খেলোয়াড়রাই। চেলসি রক্ষণকে যেমন ভাবতে হচ্ছে, মেসি-সুয়ারেস-বুস্কেতস-ইনিয়েস্তা চতুর্ভূজকে। ‘এক্স ফ্যাক্টর’ হিসেবে রয়েছেন ওসুমানে দেম্বেলে। তেমনই বার্সেলোনার জেরার্ড পিকে-জর্ডি আলবা-রা ছক কষছেন আলভারো মোরাতা-এডেন হ্যাজার্ড যুগলবন্দিকে বোতলবন্দি করার জন্য। বার্সেলোনা রক্ষণ ভাল করে জানে, রিয়াল মাদ্রিদের নজরে পড়ার জন্য এই ম্যাচকে মঞ্চ বানিয়ে নিতে পারেন হ্যাজার্ড। সঙ্গে উইলিয়ান-এর উইং ধরে আক্রমণ আর বিষাক্ত ক্রসের মোকাবিলা করা। সতর্ক পিকে তাই বলছেন, ‘‘কঠিন এই ম্যাচটায় আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থেকে নামতে হবে আমাদের। একটা ভুল মানেই খারাপ ফল হতে পারে। তা হলে গোটা মরসুমের ভাল পারফরম্যান্সের গুরুত্ব থাকবে না। ’’

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এই মহারণের জন্য মেসি এ দিন লন্ডনে এলে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন প্রাক্তন ইংল্যান্ড স্ট্রাইকার গ্যারি লিনেকার। যিনি নিজেও বার্সার প্রাক্তনী। মেসির সঙ্গে ছবি তুলে আপ্লুত লিনেকার টুইট করেন, ‘অবশেষে বিশ্বের সর্বকালের সেরা ফুটবলারের সঙ্গে দেখা হল’। মেসি যদিও নিজেকে বিনয়ের চাদরে লুকিয়ে বলছেন, ‘‘কোচ জানেন কী ভাবে আমাকে ব্যবহার করতে হবে। আমাদের রক্ষণ বেশ শক্তিশালী। আর দলে এমন কিছু ফুটবলার রয়েছে যারা নিমেষে ম্যাচের ফল বদলে দিতে পারে। আমি গোল করতে পারলাম কি না সেটা বড় ব্যাপার নয়। ’’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন