শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ ০৫:৫৮:১১ এএম

‘আমি বসার আগে কোন দিন তারেক চেয়ারে বসে নাই, আমি বললে সে বসত’

জাতীয় | বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৩:৩৮:২৯ পিএম

দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জেলে যাওয়ার পরে তারেক রহমানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারস করায় দলে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে বলে গুঞ্জন নাকচ করে দিলেন বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি বলেন, এটা ভুল কথা। বিএনপির মধ্যে তারেক রহমান অনেক জনপ্রিয়। তার অতীতের অনেক দোষের কথা আছে। সে নাকি ভালো ব্যাবহার করে নাই, সিনিয়রদের সাথে নাকি দুর্বব্যবহার করেছেন। এরশাদ সাহেবের সাথে দুর্বব্যবহার করেছে। এর কারণটা হলো কি- তাকে তারা রাজার ছেলে বানায়া ফেলেছে। বিএনপির লোকজনেরা আপনে আপনে করে মাথায় তুলে ফেলছেন।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেন গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের এই প্রতিষ্ঠাতা।

তিনি অারও বলেন, তাছাড়া তারেক জিয়া ইজ এ নাইস পারসন। আমি তো তার কখনও খারাপ দেখি নাই। আমি বসার আগে কোন দিন চেয়ারে বসে নাই। আমি বললে সে বসত। ওর দুর্বব্যহারের জন্য ও (তারেক) যতটা না দায়ী, বিএনপির সিনিয়র নেতারা বেশি দায়ী। আমার মতে সে যদি সময় পায় তবে সে ভালো পলিটিক্যাল লিডার হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিশেষ জজ আদালত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

রায় ঘোষণার পর থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন