মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮ ০৬:৩৭:০২ এএম

বৃদ্ধ স্বামীকে বিয়ের অনুমতি দিয়ে ফেঁসে গেছেন প্রথম পক্ষের স্ত্রী

আন্তর্জাতিক | বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৪:৩২:০১ পিএম

বিয়েবাড়িতে সাজো সাজো রব। অতিথিদের আগমন চলছে। চলছে বিয়ের শেষ মুহূর্তের প্রস্তূতি। এরই মধ্যে লাঠিতে ভর দিয়ে হাজির হলেন বরও।

সঙ্গে তাঁর দুই মেয়েও। সাদর আমন্ত্রণে বরকে নিয়ে গেল বিয়ের মঞ্চে নিয়ে গেল পাত্রীপক্ষ। আয়োজন করে হাঁটুর বয়সি পাত্রীর সঙ্গে বিয়ে হলো সেই বৃদ্ধ পাত্রের।

খবর অনুযায়ী, ভারতের রাজস্থানে সামার্দা গ্রামে ৮৩ বছরের এক বৃদ্ধ ৩০ বছরের এক নারীকে বিয়ে করেছেন। সেই বৃদ্ধের নাম শুকরাম ভৈরব। তিনি আগেও একটি বিয়ে করেছিলেন।

কিন্তু ২০ বছর আগে তার ছেলে মারা যায়। শুকরাম ভৈরবের পৈত্রিক সম্পত্তি দেখাশুনা করার জন্যই একটি ছেলের দরকার ছিল। পুত্রসন্তানের জন্যই দ্বিতীয় বিয়ের করার সাধ জাগে তার মনে।

সূত্রের খবর, ভৈরবের দ্বিতীয় বিয়েতে সায় দিয়েছিলেন তার প্রথম স্ত্রীও। সুকরাম প্রথম পক্ষের স্ত্রীর দুই মেয়ে রয়েছেন। তারাও বিবাহিত বলে জানা গেছে। প্রথম পক্ষের স্ত্রীর কাছ থেকে সায় পাওয়ার পরেই ৩০ বছর বয়সি সেই নারীকে বিয়ে করেন সুকরাম।

বিয়ে উপলক্ষে আশেপাশের অন্তত ১২টি গ্রামের বাসিন্দাদের নিমন্ত্রণ করেছিলেন তিনি। তবে গোটা ব্যাপারটি সম্পর্কে কার্যত অন্ধকারে ছিলেন প্রশাসন। খবর নিয়ে সেই বৃদ্ধের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

তবে শুধু এই বৃদ্ধই নয়, স্বামীকে বিয়ের অনুমতি পাঠিয়ে ফেঁসে গেছেন তার প্রথম পক্ষের স্ত্রী। স্বামীর বিয়েতে সায় দেওয়ার জন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে বলে খবর রাজস্থান জেলা প্রশাসন সূত্র।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন