শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮ ০২:৪২:১৭ পিএম

ইমরান খানের বিরুদ্ধে যে চাঞ্চল্যকর প্রতারণার অভিযোগ সাবেক স্ত্রী রেহমের

খেলাধুলা | বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৫:২৯:৩৪ পিএম

পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট তারকা এবং তেহরিক ই ইনসাফ নেতা ইমরান খানের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ এনেছেন তার সাবেক স্ত্রী রেহম খান। বিবিসির সাবেক সংবাদকর্মী রেহমের অভিযোগ, তার সঙ্গে দাম্পত্য যাপনের সময় থেকেই বুশরার সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল ইমরানের।

ইমরান খানের বিরুদ্ধে যে চাঞ্চল্যকর প্রতারণার অভিযোগ সাবেক স্ত্রী রেহমের :-

১ জানুয়ারিতেই বুশরার সঙ্গে ইমরানের বিয়ে হয়েছে দাবি করে রেহম বরেণ্য ওই পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে মিথ্যাচারেও অভিযুক্ত করেন। যুক্তরাজ্যে বসবাসরত রেহম সে দেশের সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব মন্তব্য করেছেন।

দ্বিতীয় বিয়ে ভেঙে যাওয়ার মাস খানেক পর থেকেই শুরু হয় ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ হয়ে যাওয়া ইমরান খানের বিয়ে নিয়ে জল্পনা। জানুয়ারিতে বেনামি সূত্রের বরাতে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে ইমরান খানের বিয়ের গুজব ওঠে। গোপন সূত্রের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, বহুদিনের বন্ধু বুশরা মেনকাকে বিয়ে করেছেন তিনি।

গত ১ জানুয়ারি লাহোরের ডিফেন্স হাউজিং অথরিটির সেক্টর ওয়াই’র একটি বাসায় ওই বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। তবে ইমরান এবং তার দল একে গুজব বলে উড়িয়ে দেয়। সে সময় ইমরানের দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিয়ের জন্য বুসরাকে কেবল প্রস্তাব দিয়েছেন ইমরান। রেহম খানও দাবি করছেন, ইমরান আসলে জানুয়ারির ১ তারিখেই বিয়ে করেছিলেন। ফাঁস করলেন এখন এসে।

৬৫ বছর বয়সী এই পাক রাজনীতিবিদ পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ দলের প্রধান। ওই দলের পক্ষ থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেতা ইমরান খানের বিয়ের ছবি পোস্ট করা হয়। এরপরে দলের বিভিন্ন পদস্থ নেতাদের শুভেচ্ছা বার্তা থেকে নিশ্চিত হয় পাকিস্তানের এই ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ হওয়া তারকার তৃতীয় বিয়ের খবর।

পিটিআই ১৮ ফেব্রুয়ারি (রবিবার) ইমরান-বুশরার বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, ‍‘আমরা পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান ও তার স্ত্রীর সুখী দাম্পত্য জীবন কামনা করছি। আল্লাহ এই দম্পতির ওপর রহমত নাজিল করুন।’

রেহম বলেন, ‘আমি জানি এই বিয়ে হয়েছে, গত ১ জানুয়ারি এই বিয়ে হয়েছে। আর পরে তিনি তা প্রকাশ করেছেন। আমার সঙ্গেও এমনটি করেছিল ইমরান। বিয়ের দুই মাস পরে তা প্রকাশ্যে জানিয়েছিলেন তিনি।’ ২০১৫ সালে ইমরান ও রেহম বিয়ে করেন। ১০ মাস পর তাদের বিচ্ছেদ ঘটে।

ইমরানের বিরুদ্ধে দাম্পত্য যাপনকালেই বুশরার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে যাওয়ার অভিযোগ তোলেন রেহম। বলেন, ‘তিন বছর আগে বুশরার সান্নিধ্যে আসেন ইমরান, যখন আমি তার স্ত্রী ছিলাম। ইমরান সত্যবাদী নন।’ পিটিআইয়ের মুখপাত্র ফাওয়াদ চৌধুরিও ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি’র কাছে ইমরান ও বুশরার মধ্যকার বহুদিনের চেনাজানার কথা স্বীকার করেছেন। তবে বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তিনি।

তৃতীয় বিয়ের গুজবের পর জানুয়ারির মাঝামাঝি প্রথমবারের মতো নীরবতা ভাঙেন পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও তেহরিক-ই ইনসাফ দলের প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খান। তৃতীয় বিয়ের গুজব ছড়ানোর নেপথ্যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ও জিও টেলিভিশনের মালিক শাকিল-উর রহমানকে দায়ী করেন তিনি।

১ জানুয়ারি লাহোরের ডিফেন্স হাউজিং অথরিটির সেক্টর ওয়াই’র একটি বাসায় বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হওয়ার খবরটিকে নোংরা মিডিয়া প্রচারণা হিসেবে দাবি করেন ইমরান। দাবি করেন, নওয়াজ শরীফ আর শাকিল-উর রহমানের যৌথ ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এই মিথ্যে প্রচারণা চালানো হয়েছে। তিনি দাবি করেন, এসবকে গ্রাহ্য করেন না তিনি।

এর আগে দলীয় প্রধান ইমরান খানের বিয়ের গুজবকে প্রথমে ভ্রান্ত বলে উড়িয়ে দিলেও একদিনের মাথায় এবার পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ-পিটিআই এক বিবৃতিতে স্বীকার করে, পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক তার ধর্মগুরু মেনকা বুশরাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন।

পিটিআই তখন জানায়, নিজের মতামত জানাতে বুশরা খানিকটা সময় চেয়েছেন। তিনি প্রস্তাবটি গ্রহণ করলে ইমরান খান নিজেই তা দেশবাসীকে জানাবেন। ইমরান ১৯৯৫ সালে প্রথম বিয়ে করেন ব্রিটিশ নাগরিক জেমিমা গোল্ডস্মিথকে। ২০০৪ সালে তাদের বিচ্ছেদ ঘটে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন