শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮ ০২:৫৭:২৯ পিএম

শিশুশিল্পী থেকে বলিউডে সিনেমা জগতের দেবী হয়ে উঠার গল্প

বিনোদন | রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০২:৩৪:১২ পিএম

শনিবার মধ্যরাতে দুবাইয়ে আকস্মিক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বলিউডের প্রখ্যাত অভিনেত্রী শ্রীদেবী মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর।শ্রীদেবীর আসল নাম হলো শ্রী আম্মা ইয়ানগার আয়াপান।

১৯৬৩ সালের ১৩ আগস্ট জন্মগ্রহণের পর বাবা-মা এই নামই রেখেছিলেন। তবে চলচ্চিত্র দুনিয়ায় তিনি শ্রীদেবী নামে পরিচিতি পান। অভিনয়ের গুণ এবং সৌন্দর্য দিয়ে তিনি ধীরে ধীরে শ্রীদেবী থেকে হয়ে ওঠেন সিনেমার দেবী। উজ্জ্বল চোখ, কোঁকড়া চুল এবং মিষ্টি হাসির এই অভিনেত্রী অগণিত মানুষের মনে তিনি যায়গা করে নেন সহজেই।

► শিশুশিল্পী থেকে বলিউডে সিনেমা জগতের দেবী হয়ে উঠার গল্প :-

শিশু শিল্পী হিসেবে শুরু করেছিলেন অভিনয়। মাত্র চার বছর বয়সে তামিল ছবি ‘তুনাইভান’ এ অভিনয়ে অভিষেক হয় তাঁর। শিশু শিল্পী হিসেবে খুব অল্প সময়েই পরিচালকদের চোখের মনি হয়ে যায়। কখনো মেয়ে কখনো ছেলের চরিত্রে অভিনয়ে তিনি ছিলেন সাবলীল। ‘কান্ধান কারুনাই’ ছবিতে তিনি দেবতা মুরুগার ছোটবেলার চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

এছাড়াও বালা ভারতম, প্রার্থনাই, নাম নাদু, বাবু, বারি পান্থালু এবং ভক্ত কুমবারা ছবিতে তাঁর অভিনয় স্মরণীয় হয়ে আছে। তিনি ১৯৭১ সালের মালায়াম সিনেমা ‘পুমবাত্তা’র জন্য সেরা শিশু শিল্পী হিসেবে কেরালা স্টেট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড জিতেছিলেন। টিনএজ বয়সেও তাঁকে আদর করে ‘বেবি শ্রীদেবী’ ডাকতেন অনেকেই।

মূল চরিত্র হিসেবে তার প্রথম ছবি ছিল কমল হাসানের বিপরীতে ‘মুনদ্রু মুদিচু’ ছবিতে। বলিউডে শ্রীদেবী পা রেখেছেন ১৯৭৫ সালের ‘জুলি’ সিনেমার মাধ্যমে। ১৯৭৬ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবিতে তিনি পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসেবে ছিলেন। তবে নায়িকা হিসেবে তিনি ১৯৭৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ষোলা শাওয়ান’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। ছবিতে তার বিপরীতে ছিলেন অমল পালেকার এবং কুলভূষণ খরবান্দা।

চার বছর পর শ্রীদেবী জিতেন্দ্র’র বিপরীতে ‘হিম্মতওয়ালা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। ছবিটি ব্যবসা সফলতা পেয়েছিল। এরপর ‘ন্যায়নো মে সাপনা’ ছবিটিও সুপার হিট ছিল। কমল হাসানের বিপরীতে অভিনীত ‘সাদমা’ ছবিটিতে শ্রীদেবীর অনবদ্য সমালোচকদের মন কেড়ে নিয়েছিল। শ্রীদেবীর উল্লেখযোগ্য আরও কিছু ছবি হলো হিম্মতওয়ালা, মিস্টার ইন্ডিয়া, চালবাজ, চাঁদনি, নাগিনা, লামহে, খুদা গাওয়া, গুমরাহ, রূপ কি রানি চোরো কা রাজা, জুদাই এবং ইংলিশ ভিংলিশ। তার সর্বশেষ মুক্তি প্রাপ্ত ছবি ‘মম’ মুক্তি পেয়েছে ২০১৭ সালে।

বলিউডের হাতেগোনা কয়েকজন অভিনেত্রীর একজন বলে তাকে মনে করা হতো, যারা নায়ক সহকর্মীর সহায়তা ছাড়াই ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র উপহার দিতে পেরেছেন। নব্বইয়ের দশকে তিনি ছিলেন সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রী।

২৪ আগস্ট, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে দুবাইয়ে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এই বলিউড তারকা। সঙ্গে ছিলেন স্বামী বনি কাপুর ও ছোট মেয়ে খুশী কাপুর। মেয়ে জানভি কাপুর শুটিং এর ব্যস্ততার কারণে দুবাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যেতে পারেননি। মাত্র ৫৪ বছর বয়সে তার এই আকষ্মিক মৃত্যুতে বলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন