শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ ০২:২৮:৩৯ পিএম

হারের বৃত্তে মুস্তাফিজের দল

খেলাধুলা | মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৯:৪৫:২৩ এএম

সোমবার দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দারুণ বল করেছেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। ভাল করেছেন বাকি বোলাররাও। ফলে পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) তার দল লাহোর কালান্দার্সের সামনে ১৬০ রানের লক্ষ্য রাখে করাচি কিংস। তবে এই দলটিরও যে আছে শহিদ আফ্রিদি-উসমান খানের মত বোলার। আর তাদের তোপে ১৮.৩ ওভারে ১৩২ রানে অল আউট হয়ে ২৭ রানে হার কালান্দার্সের। এই নিয়ে টানা তিন ম্যাচ হারলো দলটি।

এদিন টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় কিংস। চতুর্থ ওভারে দলীয় ৩৬ রানে ফিরে যান আক্রমণাত্মক খেলতে থাকা ওপেনার জো ডেনলি। পরের ওভারেই মোস্তাফিজকে বোলিংয়ে আনেন অধিনায়ক ব্রেনডন ম্যাককালাম। প্রথম বলেই তিনি নেন নতুন ব্যাটসম্যান বাবর আজমের উইকেট। সাথে কোন রান না দেয়ায় ওভারটিও হয় উইকেট-মেডেন। দলীয় সেই ৩৬ রানেই তৃতীয় উইকেট হারানোর পর ৫০ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় কিছুটা সামাল দেন কলিন ইনগ্রাম ও রবি বোপারা। আবার উইকেট হারানো শুরু করে দলটি। শেষ পর্যন্ত বোপারা ও মোহাম্মদ ইরফানের ব্যাটে ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তোলে কিংস। ৩৪ বলে ২টি করে চার ও ছক্কায় দলীয় সর্বোচ্চ ৫০ রান করে অপরাজিত থাকেন বোপারা। মোস্তাফিজ ৪ ওভারে ২২ রান খরচায় ১টি উকেট পান। ২টি করে উইকেট পান পেসার সোহেল খান এবং দুই স্পিনার সুনিল নারাইন ও ইয়াসির শাহ।

১৬০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১ রানেই প্রথম উইকেট হারায় কালান্দার্স। দ্বিতীয় উইকেটে ৬.২ ওভারে ম্যাককালাম ও ফখর জামানের ৬৯ রানের জুটি জয়ের আশাই দেখাচ্ছিল দলটিকে। এরপরই আফ্রিদি ও উসমানের তোপে ৯১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে কালান্দার্স। উইকেট পতনের ধারা অব্যাহত রেখে ১৩২ রানে সব উইকেট হারিয়ে ইনিংস শেষ হয়ে যায় দলটির। সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন ম্যাককালাম। লেগস্পিনার আফ্রিদি ১৯ রানে ৩ উইকেট পান। বাঁহাতি পেসার উসমান পান ২৬ রানে ৩ ইউকেট। ম্যাচসেরার পুরস্কার পান আফ্রিদি। এ নিয়ে নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচই জিতেছে কালান্দার্স।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

করাচি কিংস : ১৫৯/৭ (২০ ওভার) (ডেনলি ২৮, ইনগ্রাম ২৮, বোপারা ৫০*; সোহেল ২/৪৫, ইয়াসির ২/২৫, মোস্তাফিজ ১/২২, নারিন ২/১৮)।

লাহোর কালান্দার্স : ১৩২ (১৮.৩ ওভার) (ম্যাককালাম ৪৪, ফখর ১৯, সালমান ১৫; উসমান ৩/২৬, মিলস ২/৩৩, আফ্রিদি ৩/১৯)।

ফলাফল : করাচি কিংস ২৭ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : শহিদ আফ্রিদি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন