সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ ০৫:২৫:১৩ এএম

রাবিতে শিবির সন্দেহে ৯ শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগের বেধড়ক মারধর

মো. নুরুজ্জামান খান | শিক্ষাঙ্গন | মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১০:৩৮:২১ পিএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শিবির সন্দেহে নয় শিক্ষার্থীকে বেধড়ক মেরে পুলিশে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, রাজশাহী সিটি কলেজের শিক্ষার্থী তন্ময়, লোকনাথ স্কুলের গোলাম রাব্বী, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের রহমতুল্লাহ, একই বিভাগের তানজিম, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের আরিফুর রহমান, ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ইয়াকুব, সংস্কৃত বিভাগের মিজানুর রহমান, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী তুহিন।

প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় বসে তারা মিটিং করছিলো। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাদের দেখে সন্দেহ করেন। তারপর ধরে তাদের বঙ্গবন্ধু হলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাদের প্রায় দুই ঘন্টা বেধড়ক মারধর করে পুলিশে দেওয়া হয়। আটককৃত নয় জনের মধ্যে ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিশ^বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জানায়, শিবিরের কিছু ক্যাডার শহীদ মিনার এলাকায় বসে মিটিং করছিলো। আমাদের নেতা-কর্মীরা জানতে পেরে তাদের আটক করে হলে নিয়ে আসে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা শিবিরের সাথে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করলে তাদের পুলিশে সোর্পদ করা হয়।

প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান জানায়, শিবির সন্দেহে ১৬ জন শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা শহীদ মিনার থেকে আটক করে বঙ্গবন্ধু হলে নিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে প্রক্টরিয়াল বডি ও পুলিশ নিয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই। পুলিশ প্রশাসনের সহায়তায় তাদের উদ্ধার করা হয়। ১৬ জনের মধ্যে ৯ জনের শিবিরের সাথে সম্পৃক্ততা থাকায় তাদের মতিহার থানায় প্রেরণ করা হয়। বাকি ৭ জনকে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে মতিহার থানা দায়িত্বরত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদত হোসেন জানায়, আটককৃত নয়জনকে আমরা চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছি। সুস্থ হলে তাদের থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন