বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ ০৯:৩৮:৫৯ পিএম

জামায়াত নেতার বাসায় নৈশভোজে আ.লীগের এমপি

রাজনীতি | শুক্রবার, ২ মার্চ ২০১৮ | ০৩:০১:৩০ পিএম

ইতালী প্রবাসী জামায়াত নেতার বাসায় নৈশভোজে অংশগ্রহণ করেছেন টাঙ্গাইল-(৪) কালিহাতী আসনের আওয়ামী লীগের দলীয় এমপি হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী। এমপি সোহেল হাজারীর এমন কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ ও তোলপাড় চলছে ইতালি প্রবাসীদের মাঝে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় সফরে গত (১১ থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি) ইতালিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

এ সময় এমপি সোহেল হাজারী জার্মানি হয়ে ইতালিতে অবস্থান করেন। এমপি সোহেল হাজারী ইতালিতে টাঙ্গাইল জেলা জামায়াতের সাবেক আমির ও বর্তমানে ঢাকা মহানগর জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা ডা. সফিকুর রহমানের ছোট ভাই ইতালি প্রবাসী জামায়াত নেতা এমকে রহমান লিটনের বাসায় অবস্থান করেন। সেইসঙ্গে রাতে নৈশভোজে অংশ নেন। এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে ইতালি প্রবাসী আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

এমপি সোহেল হাজারীর এমন ঘটনায় ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে তোলপাড় চলছে। স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম, ফেসবুক, টুইটারে এমপি সোহেল হাজারীর সঙ্গে ইতালি প্রবাসী জামায়াত সমর্থক এমকে রহমান লিটনের ছবি দিয়ে বিভিন্ন সংবাদ ও মন্তব্য প্রকাশিত হচ্ছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে এমপি সোহেল হাজারী হাসিমুখে সংবর্ধনার ফুল গ্রহণ করছেন। এ রকম বহু ছবি ইতালি প্রবাসীসহ বাংলাদেশি আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকদের ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এমপি সোহেল হাজারীর এমন কর্মকাণ্ডে বিক্ষুব্ধ হয়ে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছেন ইতালির রোমা নর্দ শাখা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জাতিসংঘের কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফএডি) গভর্নিং কাউন্সিলের সভায় অংশগ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতালি যান। সেখানে কাউন্সিলের সভা ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেন। এসব অনুষ্ঠানে দেশের বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী, দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমকর্মী ছাড়াও বিভিন্ন পর্যায়ের ইতালি প্রবাসীরা অংশ নেয়।

ইতালির রোমা নর্দ শাখা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মিয়া জানান, টাঙ্গাইল-(৪) কালিহাতী আসনের এমপি হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারীকে ইতালির রোমা নর্দ শাখা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। কিন্তু এমপি সোহেল হাজারী আমাদের সংবর্ধনা না নিয়ে টাঙ্গাইল জেলা জামায়াতের সাবেক আমির ও বর্তমানে ঢাকা মহানগর জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা ডা. সফিকুর রহমানের ছোট ভাই ইতালিতে বসবাসরত জামায়াত নেতা এমকে রহমান লিটনের বাসায় অবস্থান করেন। সেইসঙ্গে তাদের সংবর্ধনায় অংশ নেন। এমপি সোহেল হাজারীর এ ঘটনায় আমরা চরম বিক্ষুব্ধ।

ইতালির রোমা নর্দ শাখা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাহিদ হাসান করিম জানান, এমপি সোহেল হাজারীর এমন কর্মকাণ্ড আমরা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা হচ্ছে। আর কিভাবে এমপি স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াতের নেতার বাসায় আতিথেয়তা ও সংবর্ধনায় অংশ নেন। এ ঘটনায় আমরা চরমভাবে লজ্জিত।

ইতালির রোমা নর্দ শাখা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান রানা জানান, এমপি সোহেল হাজারী আমাদের সংবর্ধনা না নিয়ে জামায়াত নেতা লিটনের বাসায় থাকেন এবং তাদের সংবর্ধনা গ্রহণ করেন। বিষয়টি আমরা প্রবাসী আওয়ামী লীগ কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না।

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল-(৪) কালিহাতী আসনের এমপি হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী বলেন, লিটন আমাকে সংবর্ধনা দেবে কেন? টাঙ্গাইল জেলা সমিতি আমাকে সংবর্ধনা দিয়েছে। লিটনকে আমি ব্যক্তিগত ভাবে চিনি না। আমি জানি না তিনি কার ভাই বা কার ছেলে। আর সেই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আমার সঙ্গে আরও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ছিলেন। তারা কেউ আমাকে এ বিষয়ে কিছু বলেননি। আর আমি সেখানে রাত্রিযাপন করিনি। তারা আমাদের জন্য একটি ডিনারের (নৈশভোজ) আয়োজন করেছিল। আমরা ডিনার করে চলে এসেছি। জামায়াতের বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন সংগ্রাম। জামায়াতের কাছে আমরা কেন যাব? আমরা সবসময় জামায়াতের ব্যাপারে সিরিয়াস।-পূর্বপশ্চিমবিডি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন