বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ ০৯:৫২:৪০ পিএম

কী বলবেন আজ ফেসবুক লাইভে সানাই?

বিনোদন | শুক্রবার, ২ মার্চ ২০১৮ | ০৫:৪৭:০১ পিএম

ফেসবুকে 'অশালীন' ছবি পোস্ট করার অভিযোগে উঠতি নায়িকা সানাই মাহবুব সুপ্রভাকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী। নোটিশে সানাইকে ওই ছবি ফেসবুক থেকে অনতিবিলম্বে নামিয়ে ফেলার পাশাপাশি ভবিষ্যতে এমন ছবি না দেওয়ার জন্য বলা হয়। সেটা না করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানানো হয়। তবে সানাই এখনো তার সেই 'অশালীন' ছবিগুলো ফেসবুক থেকে সরাননি। উল্টো বেশ কড়া ভাষায় ফেসবুকে নোটিশের উত্তর দিয়েছেন। এমনকি আজ রাত সাড়ে ১০টায় তিনি ফেসবুক লাইভে এসে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন।

নোটিশে বলা হয়, আপনি সানাই মাহবুব সুপ্রভা গত ১৩-০২-২০১৮ তারিখে ''Sanayee Mahbob Suprova'' নামক আইডি থেকে স্বল্প বসন পরিহিত অশালীন ছবি পোস্ট করেন। পোস্টটি অল্প সময়ের মধ্যে একাধিক আইডি থেকে শেয়ার ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা হয়। আপনার এরূপ বিকৃত মানসিকতা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় তোলে। আপনার এহেন মানসিকতা যুব সমাজকে নৈতিকতা বিবর্জিত কাজে উদ্বুদ্ধ করে।আপনি হাজার বছরের বাঙালি সংস্কৃতি, ধর্মীয় মূল্যবোধ, বঙ্গ নারীর সম্মান ও মর্যাদা ক্ষুন্ন এবং সাধারণ মানুষের অনুভূতিতে আঘাত করেছেন। যা আইনত দণ্ডণীয়। আপনি আইনি নোটিশ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ওই সকল কুরুচিপূর্ণ পোস্ট আপনার আইডি থেকে সরিয়ে নেবেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরণের অসামাজিক এবং জনমনে ঘৃণা ও উত্তেজনা সৃষ্টিকারী পোস্ট দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন। নতুবা আপনার প্রতি আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হব। ছবিগুলো 'অশালীন' এমনটা জানিয়ে সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের ডি. এইচ দিপু নামের এক আইনজীবী সানাইয়ের বাসার ঠিকানায় আইনি নোটিশটি পাঠান।

নোটিশের প্রেক্ষিতে সানাই ছবি না নামিয়ে উল্টো ফেসবুকে লিখেছেন, ''মাথায় বাজ পড়তেছে আমার। আর কতো?? ১ লা ফাল্গুনে আমি ফেসবুকে কি ছবি আপলোড করছি তার জন্য আমার বাসার ঠিকানায় উকিল নোটিশ পাঠিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট এর উকিল। এটা কতোটা যুক্তিসংগত হয়েছে?? আমি কি আসলেই তেমন কোন পিক আপ দিয়েছি?? এগুলো কেন করছেন আপনারা? কোন উদ্দেশ্য থেকে, আমার জানা দরকার। শুরু থেকেই আমার ডানে গেলে দোষ, বামে গেলে দোষ.. কাহিনী কী?? আর এই নোটিশ পাওয়ার পর, আপনারা কি মনে করেছেন, আমি বাসায় লেপ গায়ে দিয়ে কান্না করব?? স্যরি, আলহামদুলিল্লাহ্‌ আমি অতোটা নরম মনের না। আল্লাহ্‌ আমাকে অনেক সাহসী বানিয়েছেন। এগুলা করে লাভ নাই।''

এরপর শুক্রবার দুপুরের পর সানাই ফেসবুকে ফের লেখেন, ''ফেসবুক লাইভে আসব.. আজকে রাত ১০.৩০ এ... কিছু ব্যাপার নিয়ে কথা না বল্লেই না.. ধন্যবাদ।''

তবে তিনি কী বিষয়ে কথা বলবেন তা জানাননি। এমনকি ছবিগুলো তিনি সরিয়ে নেবেন কিনা তাও বলেননি। যদিও তিনি আগের পোস্টে বলেছেন, নোটিশ পাওয়ার পর বাসায় লেপ গায়ে দিয়ে কান্না করার মতো মেয়ে তিনি নন। অতটা নরম মনের মানুষ তিনি নন। নিজেকে যথেষ্ট সাহসি বলেও মন্তব্য করেছেন। একইসঙ্গে নোটিশের প্রেক্ষিতে তিনি জানান, এসব করে কোন লাভ নেই। এখন দেখার পালা, আইনজীবীর বক্তব্যকে সমর্থন দিয়ে সানাই নিজের আপলোড করা ছবিগুলোকে 'অশালীন' মনে করে নামিয়ে নেন, নাকি নিজের কাজের সপক্ষে কোন যুক্তি তুলে ধরেন। সমাধান মিলবে হয়তো ফেসবুক লাইভে।

তবে কোন কাজের যেমন একাধিক উদ্দেশ্য থাকতে পারে। তেমনি সমালোচনারও থাকে বিভিন্ন দৃষ্টিকোন। আর এ কারণেই সানাইয়ের এই উকিল নোটিশ পাওয়ার বিষয়টিকেও তীর্যকভাবে দেখছেন কেউ কেউ। অনেকের মতে বাংলাদেশের অনেক অভিনেত্রী ও মডেল এর চেয়েও খোলামেলা ছবি এমনকি ভিডিও আপলোড করছেন। কেউ কেউ এক্ষেত্রে নায়লা নাঈমের প্রসঙ্গও টেনে এনেছেন। সেখানে উঠতি একজন নায়িকার একটা ছবি আপলোড করা নিয়ে এত হৈ চৈ নানা প্রশ্ন জন্ম দিয়েছে মানুষের মনে।


খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন