শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ ০৬:৩৭:৫৫ এএম

সেদিন সৌরভ বুঝেছিলেন শচীন শুধু একজন মহান খেলোয়াড়ই নন, মহান মানুষও!

খেলাধুলা | শুক্রবার, ২ মার্চ ২০১৮ | ১১:৩০:৪১ পিএম

ঘটনাস্থল ১৯৯৬ সালের লর্ডস। তখনও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্টের বল গড়ায়নি। গা ঘামাচ্ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। অনুশীলন চলাকালীন চোট পান সঞ্জয় মাঞ্জরেকর। চোট এতটাই ছিল যে টেস্ট থেকে ছিটকে যেতে হয় তাকে।

প্রথম একাদশে চলে আসেন সৌরভ। তার পরের ঘটনা ইতিহাস। বঙ্গতনয় শতরান হাঁকান সেই টেস্টে। আত্মজীবনী ‘আ সেঞ্চুরি ইজ নট এনাফ’-এ সৌরভ সেই লর্ডসের ঘটনাই তুলে ধরেছেন। একটা ঘটনার উল্লেখ করে শচীনের সঙ্গে তার বন্ধুত্বের উল্লেখ করেছেন মহারাজ। লর্ডস টেস্টের চা বিরতির সময়ে সৌরভের ব্যাটের হ্যান্ডেলে টেপ বেঁধে দিয়েছিলেন ‘মাস্টার ব্লাস্টার’।

আত্মজীবনীতে সৌরভ লিখেছেন, ‘আমার প্রথম টেস্টে চা পানের বিরতির সময়ে ১০০ রানে অপরাজিত ছিলাম। ছ’ ঘণ্টার ব্যাটিংয়ের পর চা বিরতির সময়ে দ্রুত ড্রেসিংরুমে ফিরে এসেছিলাম। আমার ব্যাটের হ্যান্ডেলটা একটু আলগা হয়ে গিয়েছিল। প্যাড পরে বসেছিলাম আমি। এক কাপ চা দেওয়া হয়েছিল আমাকে। চা বিরতি ছিল মাত্র ১৫ মিনিটের। সেই কারণে দ্রুত হ্যান্ডেলে টেপ বাঁধছিলাম। আমি ব্যাটের টেপ বাঁধছি দেখেই ছুটে আসে শচীন। আমাকে বলে, তুমি বিশ্রাম নাও, চা খাও। তোমাকে তো ব্যাট করতে নামতে হবে। আমি টেপ বেঁধে দিচ্ছি।’

একেই বলে বন্ধুত্ব। এই একটা ঘটনাতেই পরিষ্কার কেন মহান শচীন। সৌরভ-শচীনের এই জুটিটা একদিনে তৈরি হয়নি। বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট থেকেই দু’জন একসঙ্গে খেলে এসেছেন। খেলতে খেলতেই দুই তারকার মধ্যে গড়ে উঠেছিল সম্পর্ক। সেই সম্পর্ক এখনও অটুট। জীবনের প্রথম ম্যাচেই সৌরভ সেদিন বুঝেছিলেন শচীন শুধু একজন মহান ক্রিকেটার নয় বরং মহান মানুষও।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন