বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৫:৪২:২৪ এএম

খারাপ সময়ে ‘অ্যাসিড টেস্ট’ দিতে কলম্বো যাচ্ছে টাইগাররা

খেলাধুলা | শনিবার, ৩ মার্চ ২০১৮ | ০৭:৩৮:১৬ পিএম

আরো একটি কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি টিম বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার কাছে ওয়ানডে, টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে খাবি খাওয়া ও পর্যদুস্ত টাইগারদের এবার অগ্নি পরীক্ষা দ্বীপ দেশ শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয়। সেখানে শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতার ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত নিদাহাস ট্রফিতে অংশ নেবেন মাহমুদউল্লাহ, তামিম, সৌম্য, মুশফিক, মোস্তাফিজরা।

আগামী ৬ মার্চ থেকে কলম্বোয় শুরু হতে যাওয়া এ আসরে অংশ নিতে কাল দুপুর একটায় রাজধানী ঢাকা ছাড়বে জাতীয় দল। ৮ মার্চ ভারতের সাথে ম্যাচ দিয়ে নিদাহাস ট্রফিতে যাত্রা শুরু হবে টাইগারদের। সবার জানা, ঘরের মাঠে তিন জাতি ক্রিকেট আর শ্রীলঙ্কার সাথে টেস্ট এবং টি টোয়েন্টি সিরিজে লঙ্কানদের কাছে নাকাল হয়েছে টাইগাররা।
ঘরের মাঠে লঙ্কানদের সাথে কুলিয়ে উঠতে না পারা টাইগারদের এবার আরও বড় পরীক্ষা কলম্বোয়। দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কা বরাবর শক্তিশালী ও কঠিন প্রতিপক্ষ। তারচেয়ে বড় কথা, তৃতীয় দল হিসেবে থাকবে ভারত। নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি, অন্যতম চালিকা শক্তি মহেন্দ্র সিং ধোনিরা নেই ভারতীয় দলে। তারা বিশ্রামে। তারপরও রোহিত শর্মার ভারত মহাপরাক্রমশালী।
এখানেই শেষ নয়। বাংলাদেশের অগ্নি পরীক্ষার মুখোমুখি হবার অন্য কারণও আছে। ব্যাট ও বল হাতে দলের সবচেয়ে বড় নির্ভরতা সাকিব আল হাসানের সার্ভিস মিলবে না এ আসরেও। আগেই বোঝা যাচ্ছিলো, সাকিব নিদাহাস ট্রফি খেলতে পারবেন না। তবে আজ দুপুরে সে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলো- সাকিব নিদাহাস ট্রফিতেও নেই। তার বদলে লিটন দাস অন্তর্ভুক্ত।
তার মানে দেশের মাটিতে তিন জাতি আসরে নেতৃত্ব দেয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ শ্রীলঙ্কার মাটিতে নিদাহাস ট্রফিতেও বাংলাদেশের অধিনায়ক। দেশের মাটিতে তিনজাতি টুর্নামেন্টের ফাইনালের প্রথম পর্বের শেষ দিকে আঙ্গুল ফেটে মাঠের বাইরে ছিটকে যাওয়া সাকিব ছাড়া যে দলের ব্যাটিং ও বোলিং অনেকটাই কমজোরি, তার প্রমান মিলেছে আগেই। ভারত ও শ্রীলঙ্কার সাথে দেশের বাইরে সাকিবের অভাব যে আরও প্রকট হবে! তাই নিদাহাস ট্রফিতে দুই শক্ত প্রতিপক্ষর সাথে প্রিয় জাতীয় দলের পরিণতি নিয়ে চিন্তিত, উদ্বিগ্ন শঙ্কিত ভক্ত-সমর্থকরা।

সবাই উৎকন্ঠায়- কি হবে? কেমন করবে টাইগাররা? দেশের মাটিতে ব্যর্থতার বৃত্তে আটকে থাকা অবস্থা থেকে কি বেরিয়ে আসা সম্ভব হবে? নাকি আরও অতলে তলিয়ে যাবে? সেই প্রশ্ন সামনে রেখেই কাল কলম্বোর উদ্দেশ্যে শুরু হবে আকাশ যাত্রা।
তবে দেশ ছাড়ার আগে পুরো দলকে এক সাথে পাননি নতুন কোচ। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ, ওপেনার তামিম, প্রধান পেসার মোস্তাফিজ ও মিডল অর্ডার সাব্বির পিএসএল খেলতে আরব আমিরাতে। তারা দলের সাথে যোগ দেবেন কলম্বোয়। তখনই আসলে দলের সত্যিকার পস্তুতি শুরু হবে।
রোববার বিকেলে কলম্বো পৌছানোর পর ভারতের সাথে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামার আগে তিনদিন প্র্যাকটিস করার সুযোগ মিলবে। কারণ টাইগারদের প্রথম ম্যাচ ৮ মার্চ। নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব সম্ভবত দেশেই থেরাপি নেবেন। দলের সাথে কলম্বো যাবেন না।

এদিকে এ আসরে ভারপ্রাপ্ত হেড কোচ হিসেবে অভিষেক হতে যাচ্ছে কোর্টনি ওয়ালশের। নিদাহাস ট্রফিতে দল পরিচালনার সমুদয় দায়ত্বি বর্তেছে এ ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান গ্রেটের ওপর। দেশের মাটিতে ত্রি-দেশীয় আসর ও লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্ট-টি টোয়েন্টি সিরিজে অনুশীলন পর্ব ও দল পরিচালনা এবং কৌশল নির্ধারনের সমুদয় দায়িত্ব ছিল খালেদ মাহমুদ সুজনের ওপর। পদবি ‘টেকনিক্যাল ডিরেক্টর’ হলেও আসলে খালেদ মাহমুদ সুজনই ছিলেন সর্বেসর্বা।
তারপরও আনুষ্ঠানিক পদবি বলে একটা কথা আছে। কাগজে কলমে ‘হেড কোচ’ আর টেকিন্যাল ডিরেক্টরের মোড়ক গায়ে এঁটে হেড কোচ- ঠিক এক নয়। তিন জাতি টুর্নামেন্ট ও শ্রীলঙ্কার সাথে টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে সেই টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পদ বিলুপ্ত করা হয়েছে। যেহেতু ওই পদই নেই, তাই সেই পদে থাকা খালেদ মাহমুদ সুজনের আর টেকনিক্যাল ডিরেক্টর থাকার প্রশ্নই আসে না। এ মিশনে তাকে ম্যানেজারের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
মাঝে গুজব রটেছিল , তিনি দলের সাথে যাবেন না। তবে শেষ খবর, ম্যানেজার হয়ে দলের সফরসঙ্গী হচ্ছেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন