বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ ০৩:৩৭:৩৮ পিএম

ভোঁতা ছুরি নিয়ে জাফর ইকবালকে মারতে গেলি কেন?

শিক্ষাঙ্গন | রবিবার, ৪ মার্চ ২০১৮ | ০৭:৪০:৪১ পিএম

প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে যখন উত্তাল সারাদেশ, শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষ যখন হতভম্ব, স্তম্ভিত; তখন এক শ্রেণির ধর্মান্ধ গোষ্ঠী সোশ্যাল সাইট ফেসবুকে উল্লাস করছে।

একই সমান্তরালে এই হামলায় অধ্যাপক জাফর ইকবালের মৃত্যু না হওয়ায় তারা বেজায় অসন্তুষ্টও! রীতিমতো প্রকাশ্যে ওইসব ধর্মান্ধরা ফেসবুকের বিভিন্ন নিউজ পোর্টালের কমেন্ট বক্সে এমন উগ্রবাদী কমেন্ট করে যাচ্ছে।



অন্য একটি নিউজে 'খলিল খলিল' পরিচয়ে একজন লিখেছেন, 'একটা
নাস্তিকের উপর হামলা চালানো হয়েছে ওর পক্ষে কোন মুসলমান কথা বলতে পারে
না।' এই মন্তব্যের জবাবে অনেকেই জাফর ইকবালের নাস্তিকতার প্রমাণ চাইলে খলিল
নামের সেই ব্যক্তি কোনো প্রমাণ দিতে পারেননি। 



প্রথম আলোর একটি নিউজের কমেন্টবক্সে মোহাম্মদ মারুফ নামে একজন লিখেছেন,
'হামলাকারীকে গালাগালি করতে ইচ্ছে করতেছে। তুই ভোঁতা ছুরি নিয়ে গেলি কেন??
একটি ধাঁরালো ছুরি নিয়ে যেতে পারলি না...?' 

একই নিউজে 'রুদ্র শহীদুল্লাহ' নিকের একজন লিখেছেন, 'হামলাকারী যুবককে
আমার লাল সালাম। হে মহান যুবক, বাংলার আপামর মুমিন বান্দারা তোমাকে মনে
রাখবে আজীবন।' 



সময় টিভির ফেসবুক লাইভের কমেন্ট বক্সে এমদাদউল্লাহ খান নামের একজন লিখেছেন, 'শালা মরে না কেন...?

একই পোস্টে আব্দুর রহমান লিখেছেন, 'যারা জামায়াত-শিবিরের নাম দেবে তারা নাস্তিকের অন্তর্ভূক্ত।'

মাহবুব হোসেন মায়া লিখেছেন 'আলহামদুলিল্লাহ' 



গতরাতে অধ্যাপক জাফর ইকবালের ওপর হামলার পর থেকে এমন হাজারো পোস্ট আর
কমেন্টে ভরে গেছে ফেসবুক। উপরের কমেন্টগুলো কিছু উদাহারণমাত্র। ধর্মান্ধ
মানুষগুলো কিছু না জেনে, না বুঝে, কোনো প্রমাণ হাতে না নিয়ে প্রকাশ্যে জাফর
ইকবালের মৃত্যু কামনা করে চলছেন। দেশে কথিত 'কটুক্তি'র জন্য অনেক
ব্যক্তিকেই গ্রেপ্তার-হয়রানি করা হয়েছে। কিন্তু প্রকাশ্যে মানুষ খুন করতে
চাওয়া কিংবা সমর্থন করা এসব ব্যক্তির নাগাল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কোনোকালে
পায়নি- এটাও এক ধরনের সত্য। 



আশার বিষয় হলো শুধু এসব ধর্মান্ধ গোষ্ঠীই রাজত্ব করছেনা সোশ্যাল সাইটে।
স্বাধীনতাবিরোধীদের বিরুদ্ধে জাগ্রত কণ্ঠস্বর জাফর ইকবালের ওপর হামলার
ঘটনায় ক্ষোভে-বিক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে সারা দেশে, দেশের বাইরে। গতরাত থেকেই
চলছে বিভিন্ন কর্মসূচি। 



হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এই শান্তিপ্রিয় শিক্ষক সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান
জানিয়েছেন। এমনকী গতরাতে হামলাকারী যুবককে মারধর না করার আহ্বানও জানিয়েছেন
মহৎহৃদয় এই শিক্ষক। হামলাকারী তো ধরা পড়েছে, কিন্তু এই হামলাকে যারা
সমর্থন করে যাচ্ছেন তারা ধরা পড়বে তো?

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন