রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ ০২:০৪:১৯ এএম

রাবিতে ৭ই মার্চ উপলক্ষে সকল শ্রেনির মানুষের আনন্দ র‌্যালি

নুরুজ্জামান খান | শিক্ষাঙ্গন | বুধবার, ৭ মার্চ ২০১৮ | ০৫:১০:২২ পিএম

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) এক বিশাল আনন্দ র‌্যালি বের করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। র‌্যালিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল প্রশাসন, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারিরা অংশ নেয়। আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বর থেকে র‌্যালিটি বের করা হয়। র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিনেট ভবনের সামনে এসে শেষ হয়।

আনন্দ র‌্যালি শুরুর আগে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ শহীদ মিনার মুক্তমঞ্চে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। সেখানে উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান ৭ই মার্চের ভাষণের গুরুত্ব ও তাৎপর্য সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, বাঙালি জাতির ইতিহাসের কালজয়ী ভাষণ হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ। এই ভাষণ ২৪ বছর পাকিস্তানি শোষণ-নিপীড়নে পিষ্ট জাতিকে তার ভাগ্য পরিবর্তনে অনুপ্রাণিত করে মুক্তিকামী বাঙালিতে রূপান্তরিত করে। এর মধ্য দিয়েই ভাষণটি বাঙালি জাতির ভাগ্য বদলের আশা-আকাঙ্খার প্রতীক হয়ে উঠে। এই ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি দিয়ে যেমনি বঙ্গবন্ধু তথা বাঙালি জাতিকে সম্মানিত করা হয়েছে তেমনি বাঙালি জাতির কাছেও ইউনেস্কো সম্মানিত হয়েছে।

র‌্যালিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এম এ বারী, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকারসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, ৭ মার্চ উপলক্ষে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আনন্দ মিছিল বের করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি তাদের দলীয় টেন্ট থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন