সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৭:৫৬:১৫ পিএম

এই প্রথম সীমান্ত পাহারা দিবে মেয়েরা

আন্তর্জাতিক | বৃহস্পতিবার, ৮ মার্চ ২০১৮ | ১০:৪২:২০ পিএম

দিনকয়েক আগেই যুদ্ধবিমান নিয়ে আকাশে ওড়ার ছাড়পত্র পেয়েছেন ভারতের তিন মহিলা। এবার নারী দিবসে আরও একটা সুখবর। ইন্দো-তিবেতান বর্ডার ফোর্সে প্রথম মহিলা হিসেবে যোগ দিচ্ছেন ২৫ বছরের প্রকৃতি।

২০১৬ তেই প্রথম ‘সেন্ট্রাল আর্মড পুলিশ ফোর্স’-এ মহিলাদের নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। তবে আইটিবিপি এই প্রথমবার মহিলা কমব্যাট অফিসার নিয়োগ করল।

প্রথমবারের চেষ্টাতেই ইউপিএসসি পরীক্ষায় সফল হয় প্রকৃতি। বাবা রয়েছেন এয়ার ফোর্সে। তাই ইউনিফর্ম গায়ে দিয়ে দেশসেবা করাই ছিল প্রকৃতির ইচ্ছা। আইটিবিপি-কেই পছন্দের তালিকায় প্রথমে রেখেছিলেন তিনি।

বিহারের সমস্তিপুরের বাসিন্দা প্রকৃতি। ২০১৬ তে সংবাদমাধ্যমে জানতে পারেন ‘সেন্ট্রাল আর্মড পুলিশ ফোর্স’-এ মহিলাদের নিয়োগ করা হবে। আইটিবিপিতেও কমব্যাট রোলে মহিলা নেওয়া হচ্ছে বলে জানতে পারেন তিনি। তখনই সিদ্ধান্ত নেন এই বাহিনীতে যোগ দেওয়ার। পরীক্ষায় সফল হওয়ার পরই এই বাহিনীকে বেছে নেন।

ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ছাত্রী প্রকৃতি পোস্টিং পাচ্ছেন উত্তরাখণ্ডের পিথোরাগড়ের আইটিবিপি ইউনিটে। কিছুদিনের মধ্যে দেরাদুনে অফিসারস ট্রেনিং অ্যাকডেমিতে যোগ দেবেন তিনি। আগামী বছর অ্যাসিস্ট্যান্ট কমান্ডান্ট হিসেবে যোগ দেবেন তিনি। দেরাদুনে ট্রেনিং শেষ হলেই সীমান্তে মোতায়েন করা হবে তাঁকে। এখন শুধুমাত্র এই ফোর্সের কনস্টেবল র‍্যাংকে মহিলাদের নিয়োগ করা হয়।

জাতপাতের সমাজে তাঁর বাবা-মা পদবী ছাড়াই নাম ব্যবহার করতে শিখিয়েছেন তাঁকে। তাঁর এই সাফল্যের জন্য বাবা-মা’র সমর্থনের কথা উল্লেখ করলেন তিনি। ২০১৩-১৪ তে বিএসএফ ও এসএসবিও মহিলা নিয়োগ করেছে। শুধু ভারত-চিন সীমান্তের কঠিন পরিস্থিতিতে পাহারা দেওয়ার জন্য আইটিবিপি মহিলাদের কোনোদিন সুযোগ দেয়নি। আইটিবিপি-র ৮৩,০০০ জওয়ানের মধ্যে মাত্র ১৫০০ মহিলা। তাদের বেশিরভাগই কনস্টেবল। এছাড়া চিকিৎসকের মত কিছু উচ্চপদে মহিলা থাকলেও সরাসরি কমব্যাট রোলে তাদের এতদিন রাখা হত না। তবে এবার সেই সংজ্ঞাটা বদলে যাচ্ছে।-কলকাতা২৪

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন