বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ ০২:৪৫:৩২ পিএম

কুমিল্লায় দিন দুপুরে সাংবাদিক কুপিয়ে হত্যা!

সাজ্জাদ হুসেইন | জেলার খবর | কুমিল্লা | লালমাই | রবিবার, ১১ মার্চ ২০১৮ | ০৭:০৬:৪৮ পিএম

কুমিল্লার লালমাইতে, দিনের আলোতে লোকজনের সামনে কুপিয়ে হত্যা করলো স্বাধীনমতালম্বী সাংবাদিক ও ব্লগার মিজানুর রহমানকে. প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, গত ৮ মার্চ ২০১৮ সকাল ৯ টায় নিহত মিজানের গ্রামের বাড়ির সামনেই এই নৃশংস হত্যাকান্ড সংগঠিত হয়.

আগে থেকে উৎ পেতে থাকা হত্যাকারীরা দেশীয় অস্ত্র চাইনিজ কুড়াল ও ধারালো অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে লুকিয়ে ছিলো মিজানের বাড়ির সামনে. মিজান যথারীতি বাড়ি থেকে বের হয়ে এলে , সন্ত্রাসীরা অতর্কিত হামলা চালায়.

৩/৪ জন মিলে উপুর্যুপুরি ছুরিকাঘাতে তাৎক্ষণিক মৃত্যু নিশ্চিত করে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়.

পাশের লোকজন ভয়ে কেউ কাছে আসতে সাহস পায়নি মিজানকে বাঁচাতে. সন্ত্রাসীরা এলাকার প্রভাবশালী ও সরকারের মদদে এর আগেও বিভিন্ন অপরাধ মূলক কর্মকান্ডে জড়িত ছিলো বলে জানায় এলাকার লোকজন.

নিহত মিজান গত কয়েকমাস যাবৎ পত্রিকায় এবং সামাজিক মাধ্যমে সরকারের সাম্প্রতিককালে গৃহীত জনবিমুখ কর্মকান্ডের সমালোচনা করে আসছিলেন বলে জানা যায়.

তিনি কুমিল্লা জেলা ও বিভাগের নাম পরিবর্তনের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলের বিশেষ ভূমিকা রাখছিলেন.

অনেকেই মনে করেন, সরকারের কর্মকান্ডের বিরোধিতা করার রেশ হিসেবেই মিজানের জীবন দিতে হয়েছে.

এদিক ঘটনার ৩ দিন পার হলেও পুলিশ কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি. পুলিশ এই প্রতিবেদককে জানান, আসামি ধরার জোর প্রচেষ্টা চলছে.

কিন্তু মিজানের পরিবার থেকে জানানো হয়, পুলিশ খুনিদের পক্ষে কাজ করছে, ইচ্ছাকৃত ভাবেই মিজান খুনের আসামিদের ধরছেনা বলে অভিযোগ করে মিজানের পরিবার.

মিজানের কাছের বন্ধু স্বজন সহকর্মী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা ভীত সন্ত্রস্ত অবস্থায় দিনাতিপাত করছে. খুনিরা বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে. সরকারের বিরুদ্ধে এবং সরকারের কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে যারাই কথা বলবে, তাদের মিজানের মতো ভাগ্য বরণ করতে হবে.

বিষয়টি নিয়ে পুরো এলাকাতে এখন পর্যন্ত থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে.




খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন