শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৪:২৩:১৬ এএম

এশিয়ার নিকৃষ্টতম বিমানবন্দর ছিল নেপালের ত্রিভুবন (ভিডিওসহ)

আন্তর্জাতিক | সোমবার, ১২ মার্চ ২০১৮ | ০৯:৫৮:৪২ পিএম

বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ বিমানবন্দরের তালিকায় নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরের নাম আছে বহুকাল ধরেই। সবশেষ তিন বছর এশিয়ার নিকৃষ্টতম বিমানবন্দর ছিল ত্রিভুবন।

বিমানবন্দরের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে জরিপ পরিচালনাকারী সংস্থা ‘স্লিপিং এয়ারপোর্টস ডটকম’-এর এক সংবাদে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সংস্থাটি ২০০৪ সাল থেকে বিশ্বের নিকৃষ্টতম বিমানবন্দরগুলোর তালিকা প্রকাশ করে আসছে।

২০১৭ সালের নভেম্বরে সবশেষ জরিপের ফল প্রকাশ করেছিল সংস্থাটি। এতে জানানো হয়, নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর অত্যন্ত বিপজ্জনক বিমানবন্দর।



ত্রিভুবন বিমানবন্দরে বিমান অবতরণের দৃশ্য।

এ ছাড়া এর পরিচালনও ত্রুটিপূর্ণ। কার্যক্রম খুব ধীরগতির। ব্যবস্থাপনা, অবকাঠামো সুবিধা ও সেবার মান নিয়ে আকাশপথে ভ্রমণ করা যাত্রীদের মতামতের ভিত্তিতে বিমানবন্দরগুলোর অবস্থান নির্ধারিত হয়েছে।

ওই জরিপের ফল অনুযায়ী এশিয়ায় ২০১৭ সালে নেপালের কাঠমাণ্ডু ত্রিভুবন বিমানবন্দরের পর অন্যান্য নিকৃষ্ট বিমানবন্দর হচ্ছে যথাক্রমে- ইসলামাবাদ বিমানবন্দর, এশিয়ার ফিলিপাইনের ম্যানিলা নিনয় অ্যাকুইনো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, উজবেকিস্তানের তাসখন্দ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ভিয়েতনামের হ্যানয় নই বাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, চীনের গুয়ানজুবাইয়ু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, কম্বোডিয়ার পনোম ফেন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ভিয়েতনামের হো চি মিন সিটি তেন সন থাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। দশম স্থানে রয়েছে ভারতের চেন্নাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।

এ তালিকায় সিঙ্গাপুরের চ্যাংগি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিশ্বের সেরা বিমানবন্দর হিসেবে স্থান পেয়েছে। কোরিয়ার সিউল ইঞ্চিয়ন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্বিতীয় এবং জাপানের টোকিও হেনেডা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এ তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে আছে।
 ত্রিভুবন বিমানবন্দরের গুগল ইমেজ

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর কেন্দ্রস্থল থেকে ছয় কিলোমিটার দূরে উপত্যকায় অবস্থিত। এটি নেপালের একমাত্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং ১৯৪৯ সাল থেকে একটি বিমানঘাঁটি হিসেবে কাজ করেছে। এটি রাজা মহেন্দ্র ১৯৫৫ সালে উদ্বোধন করেন এবং ১৯৬৪ সালে বর্তমান নামে পরিচিত হয়। শুরুতে এটি ঘাসের রানওয়ে ছিল, ১৯৫৭ সালে কংক্রিটের আস্তরন স্থাপন করা হয় এবং বেশ কয়েকবার সম্প্রসারণ করা হয়। ত্রিভুবনে প্রথম জেট বিমান নামে ১৯৬৭ সালে এবং জেট বিমান নিয়মিত পরিচালনা শুরু হয় ১৯৭২ সালে।

এই বিমান বন্দরে একটি অভ্যন্তরীণ এবং একটি আন্তর্জাতিক টার্মিনাল আছে। বর্তমানে, এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় ৩০টি আন্তর্জাতিক বিমান পরিসেবা নেপালকে সংযুক্ত করেছে এবং কয়েকটি নেপাল এয়ারলাইন্সের হাব হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

২০০১ সালে নেপাল এয়ারলাইন্স তাদের ফ্রাঙ্কফুর্ট এবং লন্ডন ফ্লাইট স্থগিত করে, যার ফলে ইউরোপের সাথে নেপালের সরাসরি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। সম্প্রতি, টার্কিশ এয়ারলাইন্স ইস্তানবুল থেকে কাঠমান্ডু সরাসরি ফ্লাইট চালু করেছে এবং এর মাধ্যমে নেপালের সাথে ইউরোপ মহাদেশের সরাসরি যোগাযোগ পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে।-সারাবাংলা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন