বুধবার, ২০ জুন ২০১৮ ০৭:৩১:০২ এএম

ছয় বোলার মিলে দুই উইকেট! কঠিন পরীক্ষা ব্যাটসম্যানদের

খেলাধুলা | বুধবার, ১৪ মার্চ ২০১৮ | ১০:৪৭:২৫ পিএম

টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে কোনো জয় নেই বাংলাদেশের। শক্তিশালী এই ভারতকে হারাতে হলে অলরাউন্ড পারফরম্যান্স চাই। দারুণ বোলিংয়ের পাশাপাশি দুর্দান্ত ব্যাটিং। কিন্তু সেটা কোথায়? ব্যাটিং কেমন হবে সেটা দেখা যাবে, তবে মোস্তাফিজদের সাধারণ বোলিংয়ে ব্যাটিংয়ের উপর বিরাট চাপ ফেলে দিয়েছে নিশ্চিতভাবে। বোলিংয়ে ব্যর্থতার আরেক ম্যাচে ভারত তুলে ফেলেছে ১৭৬ রান, ৩ উইকেটে (রোহিত শর্মা ৬১ বলে ৮৯)। ৬ বোলার মিলে নিতে পারলেন ২ উইকেট! বাকিটা রান আউট। নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে খেলতে হলে আবারও ব্যাটসম্যানদের জ্বলে উঠতে হবে।

তাসকিনের পরিবের্তে একাদশে জায়গা পাওয়া তরুণ পেসার আবু হায়দার রনি প্রথম ওভারটা অবশ্য দুর্দান্ত করেছিলেন। রনিকে খেলতেই পারেননি রোহিত শর্মা। এক রান আসে ওয়াইড থেকে, রোহিত নিজে নেন এক রান, পরাজিত হন বেশ কয়েকবার। কিন্তু স্পিনার নাজমুল হাসান অপুর দ্বিতীয় ওভার থেকে পুষিয়ে নেয় ভারত। ৯ রান দেন অপু। তৃতীয় ওভারে রুবেল দেন ৭ রান।

চতুর্থ ওভারের প্রথম ৫টি বল যথেষ্ট টাইট করেছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। কিন্তু শেষ বলে ছক্কা হাঁকান শিখর ধাওয়ান। ৯ রান দেন কাটার বয়। চার ওভারে শেষে ভারতের রান ২৭। পঞ্চম ওভার করতে আসেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মানে প্রথম পাঁচ ওভার পাঁচ বোলার ব্যবহার করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

কিন্তু তাতে কাজ হচ্ছিলো না। রোহিত-ধাওয়ান জুটি ক্রমেই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছিল। ৬ ওভারের পাওয়ারপ্লেতে বিনা উইকেটে ৪৯ রান তুলে নেন ধাওয়ান ও রোহিত। ওপেনিং জুটি ভাঙতেই পারছিলো না বাংলাদেশ। ৫০ ছাড়িয়ে ৬০, ৭০ পেরিয়ে বড় পার্টনারশিপের দিকে যেতে থাকে ভারতীয় ওপেনিং জুটি। অবশেষে দশম ওভারে এসে উইকেটের মুখ দেখে বাংলাদেশ। ২৭ বলে ৩৫ করে রুবেলের বলে বোল্ড হন শেখর ধাওয়ান। ততক্ষণে ভারত তুলে ফেলেছে ৭০ রান।

রোহিত শর্মা যেদিন খেলেন সেদিন খেলেনই। প্রথম দিকে তাকে আটকানো না গেলে মুশকিল। ৩ ছ্ক্কা ও ২ চারে ৪২ বলে অর্ধশত তুলে নেন রোহিত। ভারত ১০০ রান তুলে নেয় ১৩.৩ ওভারে মাত্র এক উইকেট হারিয়ে।

রোহিত-রায়না জুটি দ্রুত রান তুলতে থাকেন। ১৫ ওভার শেষে ভারতের স্কোর ১১৭, মাত্র এক উইকেট হারিয়ে। নিয়মিত বোলাররা তেমন কিছুই করতে পারলেন না। তাই ১৬তম ওভার নিজেই তুলে নেন অধিনায়ক মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ। কিন্তু কাজ হলো না।

শেষ পাঁচ ওভারে চার ছক্কার ছ্ড়াছড়ি। লাফ দিয়ে রান বাড়তে থাকে। বাংলাদেশকে হতাশ করে শেষ ৫ ওভারে ভারত তুলে নেয় ৫৯ রান। আর ভারতের স্কোর থামে ১৭৬ রানে। রোহিত করেন ৬১ বলে ৮৯ রান। সুরেশ রায়না করেন ৩০ বলে ৪৭।

২৭ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন রুবেল। রনি দিয়েছেন ৪ ওভারে ৪০। মোস্তাফিজ ৩৮ রান। স্পিনার অপু ৪ ওভারে দিয়েছেন ২৭ রান। ৩ ওভারে ৩১ রান দেন মিরাজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ভারত ইনিংস: ১৭৬/৩ (২০ ওভার)

(রোহিত শর্মা ৮৯, শিখর ধাওয়ান ৩৫, সুরেশ রায়না ৪৭, দিনেশ কার্তিক ২*; আবু হায়দার রনি ০/৪৩, নাজমুল ইসলাম অপু ০/২৭, রুবেল হোসেন ২/২৭, মোস্তাফিজুর রহমান ০/৩৮, মেহেদী হাসান মিরাজ ০/৩১, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ০/৯)।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন