বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ ০৬:৪২:৫৫ পিএম

ভালোবাসার ফাঁদ: যৌনপল্লীতে পাচার হচ্ছে নাবালিকারা, খাচ্ছে গরুর ট্যাবলেট

জেলার খবর | ফরিদপুর | সোমবার, ১৯ মার্চ ২০১৮ | ১২:৪০:৩০ পিএম

ভালোবাসার ফাঁদে ফেলে বা বিদেশে পাঠানোর লোভ দেখিয়ে অপ্রাপ্ত বয়স্ক অনেক মেয়েকেই নিয়ে যাওয়া হচ্ছে দেশের যৌনপল্লীগুলোতে।

সেখানে এসব অসহায় মেয়েকে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়। যৌনকর্মে বাধ্য করতে তাদের খাওয়ানো হয় গরু মোটাতাজা করার ট্যাবলেট।

জানা গেছে, ভালোবাসা ও বিদেশে চাকরির নামেই মেয়েরা প্রতারণার শিকার হচ্ছেন না। প্রত্যন্ত অঞ্চলের অতিদরিদ্র পরিবারের সদস্যরা কখনও কখনও অর্থের লোভে মেয়েদের বিক্রি করে দেন।

জানা গেছে, ফরিদপুরে সরকার অনুমোদিত যৌনপল্লীতে নতুন আসা যৌনকর্মীদের স্টেরয়েড ট্যাবলেট সেবনে বাধ্য করা হয়। এসব ট্যাবলেট সাধারণত গরুকে খাওয়ানো হয়৷ গরুর স্বাস্থ্য বাড়াতে ব্যবহার করা এই ট্যাবলেট মানুষের দেহের জন্য ক্ষতিকর৷

একাধিক যৌনপল্লীর মালিক নাবালিকাদের, বিশেষ করে ১২-১৪ বছর বয়সী মেয়েদের স্বাস্থ্য ভালো করতে বিশেষ ধরনের ইনজেকশন ব্যবহার করেন।

২০১০ সালে আন্তর্জাতিক একটি সংস্থার সমীক্ষায় জানা গেছে, দেশের প্রায় ৯০ শতাংশ যৌনকর্মী ওরাডেক্সন বা অন্যান্য স্টেরয়েড ট্যাবলেট নিয়মিত গ্রহণ করেন৷ তাদের গড় বয়স ১৫-৩৫ বছর৷ দেশে আনুমানিক দুই লাখ যৌনকর্মী রয়েছেন।

জানা গেছে, ওরাডেক্সন গ্রহণ করার পর শুরুতে মেয়েদের শরীরে চর্বির পরিমাণ বাড়তে থাকে৷ কিন্তু এটি নিয়মিত সেবন করলে ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ, চামড়ায় ক্ষতের মতো মারাত্মক বিভিন্ন রোগ দেখা দেয়৷

-তথ্যসূত্র: যুগান্তর।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন