মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ ০৮:২৯:৫৩ পিএম

মশা মারতে গাপ্পির শরণাপন্ন ডিএসসিসি

নগর জীবন | মঙ্গলবার, ২০ মার্চ ২০১৮ | ০৫:০৭:০০ পিএম

মশা নিধনে আবারো গাপ্পি মাছের শরণাপন্ন হয়েছে ঢাকা দ‌ক্ষিণ সি‌টি ক‌র্পো‌রেশ‌ন (ডিএসসিসি)। মঙ্গলবার ১০ হাজার গা‌প্পি মাছ নালা, নর্দমা, ড্রেনে উন্মুক্ত ক‌রে‌ছেন মেয়র সাঈদ খোকন। ডিএসসিসির অঞ্চল-৪ এর কাজী আলাউদ্দিন রোডের ড্রেনে গাপ্পি মাছ অবমুক্ত করেন তিনি। গাপ্পী মাছের মাধ্যমে মশক নিধন সংক্রান্ত একটি র্পতিবেদন সম্প্রতি নতুন সময়ে প্রকাশিত হয়েছে।

জা‌তির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবুর রহমা‌নের ৯৮তম জন্মবা‌র্ষিকী উৎযাপ‌নে সপ্তাহব্যাপি চলা “স্বচ্ছ ঢাকা” কর্মসূচির অংশ হি‌সে‌বে এই গা‌প্পি মাছ উন্মুক্ত করা হয়।

এসময় সাঈদ খোকন ব‌লেন, জা‌তির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবুর রহমা‌নের ৯৮তম জন্মবা‌র্ষিকী উপল‌ক্ষে নানা‌বিধ কর্মসূচী গ্রহন ক‌রে‌ছে ডিএস‌সি‌সি। “স্বচ্ছ ঢাকা” কর্মসূচির আওতায় প‌রিচ্ছন্ন নগ‌রীর পাশাপা‌শি জনস্বাস্থ্য নি‌শ্চি‌তে মশক নিধন কর্মসূচী গ্রহণ করা হ‌য়ে‌ছে। ১০ হাজার গা‌প্পি মাছ ডিএস‌সি‌সির অঞ্চল-৪ এর নালা-নর্দমা-‌ড্রে‌নে উন্মুক্ত ক‌রে ফলাফল দেখা হ‌বে। য‌দি ই‌তিবাচক ফলাফল দে‌খি তাহ‌লে সকল অঞ্চ‌লে এই কার্যক্রম প‌রিচালনা করা হ‌বে।

তিনি আরো বলেন, ঢাকার প্রথম মেয়র মো. হা‌নিফ দা‌য়ি‌ত্বে থাকাকা‌লিন সম‌য়ে এ কার্যক্রম হা‌তে নি‌য়ে‌ছি‌লেন। তখন কিউলেক্স মশা নিয়‌ন্ত্রিত হ‌য়ে‌ছিল। কারণ কিউলেক্স মশা নালা-নর্দমা-‌ড্রেন বংশ বিস্তার ক‌রে। তাই আবারও এ কার্যক্রম হা‌তে নেওয়া হ‌য়ে‌ছে। ত‌বে গা‌প্পি মা‌ছে চিকুনগু‌নিয়ার বাহক এ‌ডিস মশা নিধন হ‌বে না। কারণ এ‌ডিস মশা বাসা-বা‌ড়ি‌তে জ‌মে থাকা স্বচ্ছ পা‌নি‌তে বংশ বিস্তার ক‌রে। তাই বাসা-বা‌ড়ি‌তে জ‌মে থাকা ফে‌লে দি‌তে হ‌বে।এরআগে আমাদের একটা মতবিনিময় সভা হ‌য়ে‌ছে। সভায় আমা‌দের দুর্বলতাগু‌লো চি‌হ্নিত করা হ‌য়ে‌ছে। আমরা স‌চেতনতামূলক গণ‌বিজ্ঞ‌প্তি চালু কর‌ছি। এক লাখ ৬০ হাজার বা‌ড়ির মা‌লিক‌দের লিফ‌লেট বিতরণ করা হ‌বে। আগামীকাল থে‌কে প‌ত্রিকায় বিজ্ঞ‌প্তি প্রকাশ করা হ‌বে।

এ সময় সকল বাসা-বা‌ড়ি‌ এর মা‌লিক‌দের প‌রিষ্কার-প‌রিচ্ছন্ন রাখার জন্য অনু‌রোধ জানান। না হ‌লে ভ্রাম্যমান আদালত প‌রিচালনা ক‌রে য‌দি মোশার আবাস্থল দেখা যায় তাহ‌লে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হ‌বে ব‌লেও জানান দ‌ক্ষি‌ণের এই মেয়র।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ আগস্ট রাজধানীর স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির সিদ্ধেশ্বরী ক্যাম্পাস মিলনায়তনে ‘চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনতামূলক’ এক সেমিনারে মেয়র সাঈদ খোকন বলেছিলেন,গাপ্পি মাছ দৈনিক ৫০টি মশার লার্ভা খেতে সক্ষম। তাই সিটি কর্পোরেশন ৪৫০ কিলোমিটার ড্রেনে প্রাকৃতিক উপায়ে মশক নিধনের এই কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। এজন্য গাপ্পি মাছের ১৫ লাখ পোনা প্রয়োজন। চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণে এলেও বসে থাকার কোনও সুযোগ নেই। গাপ্পি মাছ প্রকল্পের কার্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

বেশ কিছুদিন যাবৎ যখন মশার উপদ্রপে অতিষ্ঠ রাজধানীবাসী তখন অনেকেই নগরবাসী প্রশ্ন তুলেছেন গাপ্পি মাছের কী খবর, মশা নিধনে গাপ্পি মাছ কাজ করছে কি না?

মশার জ্বালায় অতিষ্ঠ রাজধানীবাসীর এমন প্রশ্নের জবাবে খুঁজতে গিয়ে জানা যায়, সেসময় ডিএসসিসির উদ্যোগ নিয়েছিলো ৪৫০ কিলোমিটার ড্রেনে ১৫ লাখ গাপ্পি মাছ ছাড়ার উদ্যোগ নিয়েছিল কিন্তু বাস্তবে গাপ্পি মাছ ড্রেনে ছাড়াই হয় নাই। সে বিষয়ে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বেলাল নতুন সময়কে বলেছিলেন,`সে সেময় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিলো গাপ্পি মাছ ছাড়ার। কিন্তু সেটা কতটা কার্যকারী হবে তা নিয়ে আমাদের সংশয় ছিল। তাই নিশ্চিত না হয়ে অযথা টাকা খরচ করে সেই সময় গাপ্পি মাছ ড্রেনে ছাড়া হয়নি`।

এদিকে `স্বচ্ছ ঢাকা` কর্মসূচির অংশ হি‌সে‌বে মঙ্গলবার আবারো এই গা‌প্পি মাছ উন্মুক্ত করা হলো।ঢাকা দ‌ক্ষিণ সি‌টি ক‌র্পো‌রেশ‌ন এলাকায় মশক নিধ‌নের জন্য ১০ হাজার গা‌প্পি মাছ নালা,নর্দমা,ড্রেনে উন্মুক্ত ক‌রে‌ন মেয়র সাঈদ খোকন।১০ হাজার গা‌প্পি মাছ ডিএস‌সি‌সির অঞ্চল-৪ এর নালা-নর্দমা-‌ড্রে‌নে উন্মুক্ত ক‌রে ফলাফল দেখা হ‌বে। য‌দি ই‌তিবাচক ফলাফল দে‌খি তাহ‌লে সকল অঞ্চ‌লে এই কার্যক্রম প‌রিচালনা করা হ‌বে।

উল্লেখ্য গাপ্পি মাছ নানা জাতের, বিচিত্র রঙের হয়। এদের আকতি-প্রকৃতিও নানা রকম। সব রকম আবহাওয়ায় বাঁচে তারা। জলাশয়ের উপরের স্তরেই মূলত ঘোরাফেরা করে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন