বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ ০৪:৪৫:৪৯ পিএম

শনিবার থেকে টাইগারদের সুপার-সিক্স, বাদ পরেছেন যে তারকারা

খেলাধুলা | বুধবার, ২১ মার্চ ২০১৮ | ১১:১২:০৫ পিএম

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্রথম পর্বের খেলা শেষ। আগামী শনিবার ২৪ মার্চ থেকে শুরু হবে সেরা ছয় দলকে নিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ড। ২৫ মার্চ থেকে শুরু হবে রেলিগেশন পর্বের খেলা। এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগ (ডিপিএল) শুরুর আগে বেশ কয়েকটি আশা দেখিয়েছিল ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) চেয়ারম্যান কাজী এনাম আহমেদ। দেশের ক্রিকেটের এই মর্যাদা পূর্ণ আসরটি টিভিতে সম্প্রচারের কথা ছিল। গোলাপি বলে দিবা-রাত্রির ম্যাচ আয়োজন করার কথাও হয়েছিল। শেষ হয়েছে প্রথম পর্বের খেলা। তবে আগের বারের মতই রয়ে গেছে এবারের আসর।

এদিকে প্রথম পর্বের খেলায় অংশ না নিলেও সুপার সিক্সে খেলার একটা সম্ভাবনা ছিল সাকিব আল হাসানের। কিন্তু তার দল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব সুপার সিক্সে খেলার টিকিট নিশ্চিত করতে না পারায় ঢাকা লিগের এবারের আসরে খেলাই হচ্ছে না বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডারের।

একই অবস্থা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। তার দল প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব সুপার সিক্সে উঠার দৌড়ে পেছনে পড়ে যাওয়ায় খেলা হচ্ছে না রিয়াদের। এজন্য মাহমুদউল্লাহর জন্যই ভালোই হয়েছে। এই সময়ে তিনি পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসের হয়ে খেলতে পারবেন।

সুপার লিগে খেলা হচ্ছে না পেস বোলার রুবেল হোসেনেরও। লিগের প্রথম পর্বের ম্যাচগুলোতে অংশ নিলেও সুপার সিক্সে খেলা হচ্ছে না দেশের অন্যতম সেরা এই পেস বোলারের। তার দল প্রাইম ব্যাংক সুপার সিক্স নিশ্চিত করতে না পারায় খেলা হচ্ছে না তার।

এদিকে টিভি সম্প্রচার বা দিবা-রাত্রির ম্যাচ না পারলেও এবারের টুর্নামেন্টে থাকছে রিজার্ভ ডে এবং রিকভারি ডে। যার ফলে গত আসরগুলোর মদো তাড়াহুড়ো করে ম্যাচ আয়োজন করতে হবেনা। চাপ পড়বেনা ক্রিকেটারদের উপরও।

গত আসরগুলোতে রিজার্ভ-ডে তে খেলা থাকলেও দেখা যেতো পরের দিনই আবার খেলতে নামতে হতো দলগুলোকে। এবার রিকভারি-ডে থাকাতে খেলার পরের দিন বিশ্রাম পাবে খেলোয়াড়রা। এমনটিই জানালেন আয়োজক কমিটির সমন্বয়কারী আমিন খান।

শনিবার থেকে সুপার লিগ শুরু করলেও সিসিডিএম এখনো সূচিই দিতে পারেনি। তবে নিশ্চিত করেছে ভেন্যু। ম্যাচ গুলো অনুষ্ঠিত হবে ফতুল্লা, মিরপুর আর বিকেএসপিতে।

ঢাকার শীর্ষ ১২ টি দল নিয়ে ফেব্রুয়ারির ৫ তারিখে মাঠে গড়ায় এবারের আসর। প্রত্যেকটি দলের বিপক্ষে একটি করে ম্যাচ দিয়ে মোট ১১টি ম্যাচ খেলে সব দল।

সুপার সিক্স নিশ্চিত করা দলগুলো:
সর্বোচ্চ ১৬ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে রয়েছে আবাহনী লিমিটেড। এর পরেই আছে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে লিজেন্ড অব রুপগঞ্জ। ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে অবস্থান করছে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ। প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব ১৩ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে।

১২ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে অবস্থান গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স এবং ছয় নম্বরে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের ১২ পয়েন্ট। সুপার সিক্স পর্বে না উঠতে পারলেও আগামী মৌসুমে খেলতে পারবে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব(১১), নবাগত ক্লাব শাইন পুকুর ক্রিকেট ক্লাব(১০) এবং প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব(১০)।

২৫ মার্চ থেকে শুরু হওয়া রেলিগেশন পর্বে খেলবে অগ্রণী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব, ব্রাদার্স ইউনিয়ন এবং কলাবাগান ক্রিড়া চক্র। এখান থেকে তলানীতে থাকা দু’দল খেলবে আগামী মৌসুমের প্রথম বিভাগ লিগ। পয়েন্ট লিগের শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট তালিকায় যে দল সবার শীর্ষে থাকবে তারাই হবে চ্যাম্পিয়ন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন