বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০১:৫০:৫২ পিএম

বড় ধরনের শাস্তি হতে পারে অস্ট্রেলিয়ার!

খেলাধুলা | রবিবার, ২৫ মার্চ ২০১৮ | ০২:৩৬:০৯ পিএম

দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার চলতি টেস্ট সিরিজের প্রথম থেকেই সমালোচনা পিছু ছাড়ছে না। স্লেজিং, ধাক্কা দেওয়া, হাতাহাতি, নিষিদ্ধ, দর্শকদের দুয়ো এসবের পর এবার আলোচনায় বল টেম্পারিং। আর এই অভিযোগ প্রমাণ হয়ে গেলে পুরো অস্ট্রেলিয়া দলই পড়তে পারে বড় ধরনের শাস্তির মুখে।

অভিযোগের তীরটা সরাসরি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ,কোচ ড্যারেন লেহম্যান এবং ওপেনার ক্যামেরন ব্যানক্রফট এর দিকে। সিরিজের কেপটাউন টেস্টের তৃতীয় দিনের একটি ভিডিওতে অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান ব্যানক্রফট কে দেখা যায় পকেট থেকে হলুদ রঙের কিছু একটা বের করে তা দিয় বল ঘষছেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, ড্রেসিংরুমে বসে দূরবীন দিয়ে মাঠের দিকে দেখছেন লেহম্যান। এরপরই চিন্তিত হয়ে পরেন তিনি।ওয়াকি টকি দিয়ে মাঠে থাকা স্মিথের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়। ধারণা করা হচ্ছে ক্যামেরায় ধরা পড়েছে এই কথা ব্যানক্রফটকে জানাতে বলা হয়েছে এবং লুকাতে বলা হয়েছে। এরপর ক্যামেরায় দেখা যায় ব্যানক্রফট পকেট থেকে বের করে হলুদ বস্তুটি ট্রাইজারের ভেতর লুকিয়ে ফেলে।

আম্পায়ার নাইজেল লং এবং রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ ব্যানক্রফটের সঙ্গে কথা বলেন। শাস্তি কী হতে পারে তা এখনো না জানানো হলেও ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে ব্যানক্রফট নিজেই বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ স্বীকার করে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনা হয়েছে, আমি লজ্জিত। এইরকম ঘটনা আমাদের টিমের সততাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। ভবিষ্যতে এইরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না।’

ক্ষমা চেয়েছেন অধিনায়ক স্মিথও। বলেন, ‘আমার অধীনে এই প্রথম এইরকম ঘটনা ঘটলো। আমরা অনুতপ্ত, এই রকমের ঘটনা আর কখনো ঘটবে না।’

অভিযোগ প্রমাণিত হলে অধিনায়কত্ব ছাড়বেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা আমি চিন্তা করবো না, আমি এখনো মনে করি এই দায়িত্ব পালন করার জন্য আমি যোগ্য। আজকের ঘটনাটি একটি বড় ভুল ছিল। সত্যি আমি বিব্রত।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন