বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮ ০৫:০২:১৬ এএম

ফেনীর মৃত্যুফাঁদ!

জেলার খবর | ফেনী | মঙ্গলবার, ২৭ মার্চ ২০১৮ | ১১:৪৩:০৭ এএম

ফেনী জেলার ২৪ কিলোমিটার রেলপথে লেভেল রেলক্রসিংয়ের সংখ্যা ২৮। এরমধ্যে ১৮টিই অরক্ষিত। আর প্রতিটিই একেকটি মৃত্যুফাঁদ।

এই ১৮টি লেভেল রেলক্রসিংয়ে এগুলোতে নেই গেইট ও গেইটম্যান। আবার যেখানে গেইটম্যান আছে সেখানেও আছে দায়িত্বহীনতা। ফলে ফেনীর এই লেভেলক্রসিংগুলোতে দুর্ঘটনা নিত্যনৈমিত্তিক হয়ে উঠেছে। সর্বশেষ গত বুধবার ভোরে ফেনী শহরের অদূরে বারাহিপুর লেভেলক্রসিংয়ে মর্মান্তিক এক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৪ জন।
একটি সূত্র জানায়, গত এক বছরে ফেনীর লেভেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনায় ঝরে গেছে ১৬টি তাজা প্রাণ। আহতের সংখ্যাও প্রায় দেড়শতাধিক। আহতদের বেশিরভাগ মানুষ পঙ্গু হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।
গেইট ও গেইটম্যান না থাকায় এবং থাকলেও দায়িত্বে অবহেলার কারণে দ্রুতগামী ট্রেনের ধাক্কায় শহরের গোডাউন কোয়ার্টার, ফাজিলপুর, চিনকি আস্তানা, শর্শদি, ভূঞারহাট, কালিদহ, মৌলভীবাজার, সহদেবপুর, মুহুরীগঞ্জ, দৌলতপুর এসব রেলক্রসিংয়ে ট্রেনে কাটাপড়ে ডাক্তার, স্কুল শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার পথচারীর অকাল মৃত্যুর নজির রয়েছে।

শহরের গোডাউন কোয়ার্টার রেল গেইটে প্রতিবছর কয়েকজনের মৃত্যু যেন অবধারিত! এখানে কী পরিমাণ মানুষ দুর্ঘটনা কবলিত হয়েছে তার ইয়ত্তা নেই। স্থানীয় অধিবাসী মহিবুল হক রাসেল এ বিষয়ে বলেন, এই গেইটে সার্বিক অব্যবস্থাপনাই দুর্ঘটনার প্রধান কারণ। এছাড়া গেইটের উপর সবসময় রিক্সা, অটোরিক্সা, সিএনজি রিক্সা জট বেঁধে যাত্রী উঠানামা করে। রেল গেইটের কাছেই সিএনজি-লেগুনার স্ট্যান্ড থাকাও বড় কারণ। জনবহুল গুরুত্বপূর্ণ এই গেইটে নেই ট্রাফিক ব্যবস্থা। রিক্সাচালক শহীদুল জানায়, আইন অমান্য করে রং সাইড দিয়ে যাতায়তের কারণে এই গেইটে বারবার দুর্ঘটনা ঘটে।

ফেনী রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার মাহবুবুর রহমান জানান, বিষয়টি দেখভাল করার দায়িত্ব নির্বাহী প্রকৌশলীর। অপরদিকে নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গেইটম্যানের গাফিলতি, জনবল সংকট ও সরকারী সঠিক ব্যবস্থাপনার অভাবে এসব দুর্ঘটনা ঘটছে। ঝুঁকিপূর্ণ রেলক্রসিংয়ের ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বারবার অবহিত করা হলেও বিষয়টির সমাধান হয়নি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন