সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:৫১:৫১ এএম

কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ৬ জনের মৃত্যু, ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

জাতীয় | শনিবার, ৩১ মার্চ ২০১৮ | ১১:৪২:২৭ এএম

উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে আমসহ বিভিন্ন ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। গতকাল (শুক্রবার) দুপুরের পর হঠাৎ করেই কালোমেঘে ছেয়ে যায় আকাশ। সেই সঙ্গে শুরু হয় ঝড়ো হাওয়া, বৃষ্টি। এসময় দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাত ও শিলাবৃষ্টিতে মারা গেছেন ৬ জন।

এদিকে, বৈরি আবহাওয়ায় চার ঘণ্টা বন্ধ থাকে কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া রুটে সব ধরণের নৌযান চলাচল।

রংপুর: শুক্রবার দুপুরে রংপুরে প্রায় একঘণ্টা বয়ে যায় কালবৈশাখী ঝড়। একপর্যায়ে শিলা বৃষ্টিতে ক্ষেতের শাক-সবজি ও হাড়িভাঙ্গা আমের ক্ষতি হয়। একই সময় তারাগঞ্জ ও বদরগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে দু’জনের মৃত্যু হয়। উত্তর-পশ্চিম থেকে ভেসে আসা মেঘমালার প্রভাবে এ ধরণের বৃষ্টি ও ঝড় হয়েছে বলে জানিয়েছে বিভাগীয় আবহাওয়া অফিস।

সিলেট: এদিন বিকেলে হঠাৎ করে সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকা অন্ধকারে ছেয়ে যায়। এরপর শুরু হয় কালবৈশাখী ঝড়ের সঙ্গে বজ্রপাত। এতে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বিদ্যুৎ সংযোগ। সিলেটে দুদিন ধরেই ঝড়-বৃষ্টি হচ্ছে।

নীলফামারী: ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় নীলফামারীর ডোমার উপজেলার জোড়াবাড়ি, গোমনাতি, বামুনিয়াসহ বিভিন্ন এলাকা। মরিচ, তামাক ও ভুট্টার ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে।

পঞ্চগড়: পঞ্চগড়ের তেতুঁলিয়ায় মুষলধারে বৃষ্টি একপর্যায়ে শিলা বৃষ্টিতে রূপ নেয়। এতে আমের মুকুল ঝড়ে যাওয়ার পাশাপাশি রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়।

গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় আকাশে মেঘ জমার পরপরই শুরু হয় শিলা বৃষ্টি। এতে, গোবিন্দগঞ্জ, সাদুল্লাপুর, সাঘাটা ও ফুলছড়ির বিভিন্ন এলাকার আমের মুকুল ও ছোটো আম পড়ে যায়। এছাড়া, শীলার আঘাতে পলাশবাড়ির হোসেনপুরে অন্তত ১৫ জন আহত হন।

ঠাকুরগাঁও: ঝড়ো বাতাসের সঙ্গে শিলা বৃষ্টি হয় ঠাকুরগাঁওয়ে। একঘণ্টার বৃষ্টিতে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কে পানি জমে যায়। আলো কমে যাওয়ায় সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচল করে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন