শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮ ০৫:৩২:৩৭ এএম

স্ত্রীর মান ভাঙাতে বাড়ি ফিরছিলেন স্বামী, পথে এক ফোনেই সব শেষ!

আন্তর্জাতিক | শনিবার, ৩১ মার্চ ২০১৮ | ০৪:৪৭:৩৮ পিএম

স্ত্রীর মান ভাঙাতে বাড়ি ফিরছিলেন স্বামী, পথে এক ফোনেই জানলেন সব শেষ! স্বামী পরকীয়ায় জড়িত। এই সন্দেহের বশে নিত্য অশান্তি লেগে থাকত সংসারে। প্রায়ই রোজই স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া হত। পরিণতি হল মর্মান্তিক। গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হলেন যুবতি। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব যাদবপুর থানায়।

দীর্ঘ ৬ বছরের প্রেম। তারপর বিয়ে। দম্পতির সাড়ে ৪ বছরের একটি সন্তানও রয়েছে। কিন্তু এসব কিছুর পরেও স্বামীর উপর পুরোপুরি বিশ্বাস করতে পারতেন না ২৫ বছরের সুধা সর্দার। স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে, এই সন্দেহ থেকেই দুজনের মধ্যে দূরত্বের তৈরি হয়। দিনে দিনে সেই দূরত্ব, মনোমালিন্য ক্রমশ বাড়ছিল।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরেও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। তারপর কাজে বেরিয়ে যান সুধার স্বামী। সুইগিতে ডেলিভারি বয়ের কাজ করেন তিনি।

খাবার ডেলিভারি দিতে অনেক রাত পর্যন্তই তাঁকে বাইরে থাকতে হয়। কিন্তু তারপরেও স্ত্রীর মান ভাঙাতে, কাজ শেষে বাড়ি ফেরার সময় চাউমিন কিনে ফিরছিলেন তিনি। যদিও চাউমিন নিয়ে বাড়ি ঢোকার আগেই সব শেষ।

রাস্তাতেই বাড়ি থেকে ফোন যায় সুধার স্বামীর কাছে। বাড়ির লোক জানান, সুধা নিজের ঘরেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। সুধার শ্বশুরবাড়ির লোকদের দাবি, ঘরের দরজা বন্ধ ছিল। তাই বাইরে থেকে কেউ-ই কিছু প্রথমে বুঝতে পারেনি। যদিও এই ঘটনায় সুধার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে পূর্ব যাদবপুরের থানায় অভিযোগ করেছেন মৃতার মা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। -জিনিউজ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন