শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:২৬:৪৬ এএম

মোস্তাফিজকে ট্রাম্পকার্ড বানাতে চাইছে মুম্বাই

খেলাধুলা | মঙ্গলবার, ৩ এপ্রিল ২০১৮ | ০৮:১৭:৩৬ পিএম

আইপিএলের সফলতম ফ্র্যাঞ্চাইজি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তিন তিনটি শিরোপা জেতা এই দলেই এবার খেলবেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাইয়ের অধিনায়ক রোহিত শর্মাও মোস্তাফিজকে ট্রাম্পকার্ড বানাতে চাইছেন।

১১তম আইপিএলের আসর বসার আগে মুম্বাইয়ের অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন মোস্তাফিজ। গত দুই মৌসুমে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের খেলোয়াড় থাকলেও এই মৌসুমে দলটি ছেড়ে দেয় মোস্তাফিজকে। সেই সুযোগ নিয়ে মুম্বাই মোস্তাফিজকে ২ কোটি ২০ লাখ ভারতীয় রূপিতে কিনে নেয়।

মুম্বাইয়ের এতোদিনের সেরা অস্ত্র লাসিথ মালিঙ্গা নেই। এবার দলটি পেয়েছে মোস্তাফিজ, জাসপ্রিত বুমরাহ, হারদিক পান্ডিয়া আর প্যাট কামিন্সের মতো তারকা পেসারদের। সেটি নিয়ে কথা বলেছেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। বিশেষভাবে বলেছেন মোস্তাফিজকে নিয়ে।

রোহিত শর্মা এক সাক্ষাৎকারে জানান, ‘বুমরাহ-ফিজ-কামিন্সকে পেয়ে আমরা একটি দারুণ বোলিং আক্রমণভাগ গড়তে পারবো। আমাদের বোলিং আক্রমণে যেমন দারুণ পেস আছে, তেমনি আছে দুর্দান্ত স্পিন। এক কথায় বোলিং আক্রমণে আমাদের দারুণ একটি ভ্যারিয়েশন দেখা যাবে। বুমরাহ-ফিজ-কামিন্সদের মতো বোলারদের পেয়ে আমি উচ্ছ্বসিত। তারা দারুণ প্রতিভাবান।’

কাটার মাস্টার মোস্তাফিজকে নিয়ে রোহিত শর্মা জানান, ‘মোস্তাফিজকে আমরা অনেকদিন থেকেই দেখছি, সে দারুণ এক পেস বোলার। তার বোলিংয়ে দারুণ বৈচিত্র্য দেখা যায়। সে বিশেষ এক বোলার যার সম্পর্কে আগে থেকে কিছুই বলে উঠা সম্ভব নয়। আর আমরা সেই মোস্তাফিজকেই দেখতে চাই। তার বোলিং হয়তো পয়েন্ট টেবিলে ভাগফল দেখিয়ে দেবে। আমি মোস্তাফিজের সঙ্গে খেলতে মুখিয়ে আছি।’

হায়দ্রাবাদে থাকাকালীন ভাষাগত দূরত্ব থাকায় বিপাকে পড়েছিলেন মোস্তাফিজ। প্রথমবার অংশ নিয়ে দলের অধিনায়ক আর ম্যানেজমেন্টকে অনেক কিছুই বোঝাতে পারেননি। তবে, সেটা মাঠে কোনো প্রভাব ফেলেনি। হায়দ্রাবাদকে চ্যাম্পিয়ন করেই ফিরেছিলেন। পরের মৌসুমটা নিজেকে সেভাবে মেলে ধরার সুযোগ পাননি হায়দ্রাবাদের টিম ম্যানেজমেন্টের কারণে।

এবার মুম্বাইয়ের টিম ম্যানেজমেন্টও তৈরি মোস্তাফিজের কাছ থেকে সেরাটা বের করে নিতে। ইতোমধ্যেই বাংলাদেশকে থেকে দলটি উড়িয়ে নিয়েছে বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটার নাফিস ইকবালকে। তামিম ইকবালের বড় ভাই এবার মুম্বাইয়ের হয়ে কাজ করবেন। মোস্তাফিজকে দেখভালের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাকে। গত বিপিএলে খুলনা টাইটান্সের কোচ ছিলেন মাহেলা জয়াবর্ধনে। সহকারী হিসেবে ছিলেন নাফিস ইকবাল। এবার মুম্বাইয়ের কোচ মাহেলা। তার এবং মুম্বাই ম্যানেজমেন্টের চাওয়াতে মোস্তাফিজকে আরও ভালোভাবে পেতেই নাফিসকে উড়িয়ে নেওয়া হয়েছে। এতোসব কাজে বোঝাই যাচ্ছে, এই আইপিএলে মোস্তাফিজকে বাজির ঘোড়া হিসেবেই দেখছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স: রোহিত শর্মা (১৫ কোটি, রিটেইন), হারদিক পান্ডিয়া (১১ কোটি, রিটেইন), জাসপ্রিত বুমরাহ (৭ কোটি, রিটেইন), কিয়েরন পোলার্ড (৫.৪ কোটি), মোস্তাফিজুর রহমান (২.২ কোটি), সূর্য্যকুমার যাদব (৩.২ কোটি), ক্রুনাল পান্ডিয়া (৮.৮ কোটি), ইশান কিষান (৬.২ কোটি), প্যাট কামিন্স (৫.৪ কোটি), এভিন লুইস (৩.৮ কোটি), বেন কাটিং (২.২ কোটি), রাহুল চাহার (১.৯ কোটি), জেনস বেহেরনড্রফ (১.৫ কোটি), প্রদীপ সাঙ্গওয়ান (১.৫ কোটি), জেপি ডুমিনি (১ কোটি), সৌরভ তিওয়ারি (৮০ লাখ), তেজিন্দর সিং (৫৫ লাখ), আকিলা ধনাঞ্জয়া (৫০ লাখ), আদিত্য তারে (২০ লাখ), মোহাম্মদ নিধেস (২০ লাখ), অনুকুল রায় (২০ লাখ), মায়াঙ্ক মারকান্দে (২০ লাখ), সারদ লাম্বা (২০ লাখ), মহসিন খান (২০ লাখ), সিধেস লাদ (২০ লাখ)।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন