শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৭:৫৬:৩০ এএম

খালেদাকে হাসপাতালে আনা প্রহসন : বিএনপি

রাজনীতি | শনিবার, ৭ এপ্রিল ২০১৮ | ০৮:৩৭:১২ পিএম

খালেদা জিয়াকে প্রস্তুত হতে সময় না দিয়ে জোর করে হাসপাতালে আনা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। বিষয়টিকে চিকিৎসার নামে প্রহসন বলছে দলটি।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
তিনি বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে আনার সময় সম্পূর্ণ অপ্রস্তুতভাবে আনা হয়েছে। কারাগারে তার কক্ষের কাছে গিয়ে বার বার তাগিদ দিতে থাকে কর্মকর্তাসহ ৭/৮ জন কারারক্ষী। একজন মুসলিম ধর্মপ্রাণ নারী হিসেবে ৩০-৩২ বছর ধরে তিনি শাড়ির ওপরে চাদর অথবা ওড়না পরিধান করেন। এ সরকার এত হীন এবং কুৎসিত মনোবৃত্তির যে একজন বয়স্ক নারী, যিনি তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, তাকে চাদর অথবা ওড়না পরিধান করার সুযোগ পর্যন্ত দেওয়া হয়নি।’

‘তাকে একরকম জোর করেই গাড়িতে উঠিয়ে হাসপাতালে আনা হয়েছে। পিজি হাসপাতালে ৫১২ নম্বর কক্ষে তাকে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু চিকিৎসার নামে পিজি হাসপাতালে নিয়ে আসা প্রহসনেরই নামান্তর। কোনো চিকিৎসাই সেখানে তাকে দেওয়া হয়নি। তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের কোনো পরামর্শের সুযোগ দেওয়া হয়নি, বলেন রুহুল কবির রিজভী।
বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘বেগম জিয়া ১৫-২০ বছর ধরে ব্যক্তিগত চিকিৎসকের চিকিৎসা নিচ্ছেন। অথচ চিকিৎসকদের চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। বেগম জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে, এ খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে ছুটে গেলে সেখানে তাদের পর্যন্ত দেখা করতে দেওয়া হয়নি। সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে এসে টানা-হেঁচড়া করা হয়েছে শুধুমাত্র হেনস্থা ও হয়রানি করার জন্য।’
খালেদা জিয়াকে অপমানজনকভাবে হাসপাতালে ওঠানো-নামানো হয়েছে, অভিযোগ করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘নিজেকে সাধু দেখানোর জন্য সরকার বেগম জিয়ার চিকিৎসার নামে নাটক করেছে। বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা বিষয়ে সরকার আজ যে বায়োস্কোপ দেখালো তার নিন্দা করার ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না।’
সুচিকিৎসার অভাবে দেশনেত্রীর কোনো ক্ষতি হলে এর চরম দায় সরকারকে নিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন