রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১২:৪৪:২১ এএম

যে ৩ ব্যক্তিকে আল্লাহ পছন্দ করেন না

বিবিধ | রবিবার, ৮ এপ্রিল ২০১৮ | ০১:১৭:৪১ এএম

কুরআনের ইলম অনুযায়ী আমলই মানুষকে আল্লাহর কাছে প্রিয় করে তোলে। কিন্তু কুরআনের পরিপূর্ণ ইলম অর্জন করে সে অনুযায়ী আমল করা খুব কম মানুষের পক্ষেই সম্ভব। সে কারণে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর উম্মতের জন্য আল্লাহর পছন্দনীয় কাজগুলোর ছোট ছোট বর্ণনা প্রদান করেছেন।

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু বর্ণনা করেন, প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘোষণা করেছেন, তিন ব্যক্তি আল্লাহর অত্যন্ত প্রিয়। তারা হলেন-

>> যে ব্যক্তি রাত জেগে আল্লাহর কিতাব (কুরআন) তেলাওয়াত করতে থাকে;

>> যে ব্যক্তি ডান হাতে আল্লাহর পথে ব্যয় করে এবং (দানে বিষয়টি) বাম হাত থেকে গোপন রাখে; এবং

>> সে ব্যক্তি, যে জেহাদে অংশগ্রহণ করে; তার সঙ্গী পরাজিত হয়ে পলায়ন করা সত্ত্বেও সে দুশমনের মোকাবেলায় সুদৃঢ় থাকে। (তিরমিজি)

অন্য হাদিসে হজরত আবু জর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘোষণা করেছেন, ‘আল্লাহ তাআলা তিন ব্যক্তিকে পছন্দ করেন আর তিন ব্যক্তিকে অপছন্দ করেন। যাদেরকে পছন্দ করেন তারা হলেন-

>> কিছু লোকের কাছে একজন সাহায্যপ্রার্থী উপস্থিত হলো, যাদের কারো সঙ্গেই কারো আত্মীয়তার সম্পর্ক নেই। শুধু আল্লাহর ওয়াস্তে সাহায্য কামনা করেছে আর মজলিসের সবাই সাহায্য করা থেকে বিরত থাকলো। এমন অবস্থায় এক ব্যক্তি মজলিস থেকে ওঠে গেল এবং সাহায্যপ্রার্থীকে এমন গোপনীয়তার সঙ্গে কিছু দান করল যে, ঐ ব্যক্তি এবং আল্লাহ ছাড়া দানের বিষয়টি অন্য কেউ জানলো না।

>> মুসলমানের একটি দল দুশমনের সঙ্গে যুদ্ধরত ছিল। রাতের শেষ প্রহরে যখন মানুষের কাছে ঘুম সর্বাধিক প্রিয় হয় তখন সবাই ঘুমের জন্য জমিনে মাথা রেখে দেয়, ওই অবস্থায় সে দলের একজন ব্যক্তি দণ্ডায়মান হয় এবং আল্লাহর দরবারে দোয়া করতে থাকে। কুরআন কারিম তেলাওয়াত করতে থাকে।

>> সে ব্যক্তি, যে কোনো জেহাদে শরিক হয়। যুদ্ধে পরাজিত হয়ে তার সঙ্গীরা পলায়ন করে কিন্তু এ ব্যক্তি দুশমনের মোকাবেলায় সে পর্যন্ত সুদৃঢ় হয়ে দণ্ডায়মান থাকে, যে পর্যন্ত সে হয়ত শাহাদাত বরণ করে অথবা আল্লাহ বিজয় দান করেন।

পক্ষান্তরে যে ৩ ব্যক্তিকে আল্লাহ পছন্দ করেন না। তারা হলো-

>> বৃদ্ধ ব্যাভিচারী;

>> অহংকারী ভিক্ষুক

>> অত্যাচারী সম্পদশালী ব্যক্তি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তার প্রিয় ব্যক্তিতে পরিণত হওয়ার তাওফিক দান করুন। আল্লাহর নৈকট্য লাভে প্রিয়নবি ঘোষিত গোপনে দান, রাত জেগে ইবাদত, ইসলামের বিজয়ে প্রচেষ্টার তাওফিক দান করুন। আল্লাহর অপছন্দনীয় কাজ ব্যাভিচার, অহংকার ও অত্যাচার থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন