সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৭:০২:৩৬ পিএম

ফার্স্ট বয় কোহলি যেখানে ‘খারাপ ছাত্র’

খেলাধুলা | মঙ্গলবার, ১০ এপ্রিল ২০১৮ | ০১:৪৩:৪৬ এএম

ক্লাসের ফার্স্ট বয়টা ক্লাস ক্যাপটেন হবে। এ-ই তো স্বাভাবিক। ব্যাটিংয়ে ফার্স্ট বয় বিরাট কোহলি দলের অধিনায়ক হিসেবেও দুর্দান্ত। কিন্তু ভারত অধিনায়ক হিসেবে তিনি যত দুর্দান্তই হোন না কেন, এক জায়গায় এসে কিন্তু ফেলটুশ হয়ে যাচ্ছেন। ২০১৩ সাল থেকে র‍য়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করা কোহলির অধিনায়কত্বের জাদু কাজ করে না আইপিএলে। গতকাল তো তাঁর কিছু কৌশল নিয়ে উঠে গেল প্রশ্নই।

কাল কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ১৭৭ রানের লক্ষ্য দিয়েও ম্যাচ জিততে পারেনি বেঙ্গালুরু। ওপেনার সুনীল নারাইন আবারও ঝড় তুলেছিলেন কেকেআরের হয়ে। ১৫ বলে ৫০ করে আউট হয়েছেন। দুর্দান্ত শুরু পেয়ে যাওয়া কেকেআর আর কখনো পথ হারায়নি। আর শুরুর এই নারাইন-তাণ্ডবের দায় অনেকটা নিতে হচ্ছে কোহলিকে। তাঁর ভুল রণকৌশলকে।

নারাইন স্পিনে চড়াও হন জেনেও যুজবেন্দ্র চাহালের হাতে বল তুলে দেন কোহলি। প্রথম বলে চার ও দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকিয়ে নারাইন একটা সতর্কবার্তা দেন কোহলিকে। কিন্তু কোহলি তাতে হার মানবেন কেন? তৃতীয় ও পঞ্চম ওভার দুটি করেন স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর। নারাইনও সমানে তাণ্ডব চালিয়ে ১৫ বলেই ফিফটি তুলে নেন। সেটাই ভিত গড়ে দেয় কেকেআরের জয়ের।

নারাইন যে স্পিনে চড়াও হবেন, এটা সব কোচ-অধিনায়কের জানা কথা। কোহলির তো আরও বেশি। আইপিএলে আগের আসরে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষেই ১৫ বলে ফিফটি করেছিলেন। পরিসংখ্যানেও দেখা যাচ্ছে, টি-টোয়েন্টিতে ওপেনিংয়ে নেমে পেস বলের বিপক্ষে নারাইনের গড় ১৫.৯৩, স্পিনের বিপক্ষে সেটি ৩৬। ৩৬ ইনিংসে ২৯ বারই নারাইন আউট হয়েছেন পেসারদের বলে।

তারই মাশুল গুনে ম্যাচটা প্রতিদ্বন্দ্বিতা না গড়ে হারতে হয়েছে বেঙ্গালুরুকে। গতবারের দুঃস্মৃতি মোছার মিশনটা ভালোভাবে শুরু করতে পারল না কোহলির দল। গতবার আট দলের লিগে আট নম্বর হয়েছিল বেঙ্গালুরু। অথচ এই দলে তারকার কমতি নেই। কোহলি তো আছেনই, এবি ডি ভিলিয়ার্স, ক্রিস গেইলরাও খেলেছেন।

গতবারই বেঙ্গালুরুর দল গঠন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। মাথাভারী ব্যাটিং লাইনআপ নিয়েও আইপিএলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় ২২ জনের মধ্যে ছিলেন না বেঙ্গালুরুর কেউ। টানা ম্যাচ হেরেছে দল। সব মিলিয়ে ম্যাচ জিতেছে মাত্র তিনটি। সমর্থকেরাও ছিলেন নাখোশ। আইপিএলে সবচেয়ে বেশি খরুচে দলগুলোর একটি। কিন্তু এখন পর্যন্ত শিরোপা ওঠেনি ঘরে। তিনবার ফাইনালে অবশ্য উঠেছিল বেঙ্গালুরু। দুবার কোহলি অধিনায়ক থাকার আগে। সবচেয়ে বেশিবার ফাইনালে উঠে একবারও শিরোপা না জেতা দল বেঙ্গালুরু। ২০১৬ আসরে শিরোপার খুব কাছে নিয়ে যাওয়া কোহলি কি পারবেন এবার এই ব্যর্থতা ঘুচিয়ে দিতে?

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন