মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৭:৩৮:১৮ পিএম

জাতি গঠনের অন্যতম উপাদান মানসম্মত শিক্ষা

আইন আদালত | বুধবার, ১১ এপ্রিল ২০১৮ | ০৭:২৭:২২ পিএম

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, জাতি গঠনের অন্যতম উপদান হচ্ছে মানসম্মত শিক্ষা। একমাত্র শিক্ষাই পারে সমাজের মূল্যবোধকে জাগ্রত করতে। মানুষ শিক্ষিত না হলে তাদের অধিকার সম্পর্কেও সচেতন হতে পারে না, অর্থাৎ সুনাগরিক সৃষ্টির লক্ষ্যে শিক্ষার বিকল্প নেই।

বুধবার (১১ এপ্রিল) সকালে যশোর সার্কিট হাউস মিলনায়তনে খুলনা বিভাগের শ্রেষ্ঠ দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটিসমূহের মাঝে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, দুর্নীতি, সুশাসন, ন্যায় বিচার, নাগরিক অধিকার, দারিদ্র বিমোচনসহ অধিকাংশ সমস্যাই কেবল শিক্ষার মাধ্যমেই দূর করা সম্ভব। রাষ্ট্রের সর্বশ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ হিসেবে শিক্ষাক্ষেত্রে বিনিয়োগ হতে হবে দুর্নীতিমুক্ত এবং দৃষ্টান্তমূলক। দুর্নীতি দমন কমিশন শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতি ন্যূনতম প্রশয় দিবে না।

তিনি বলেন , শিক্ষকরা সমাজের সবচেয়ে সম্মানীয় অংশ। তাই তাদের মর্যাদা, বেতন-ভাতা এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধা আরও বৃদ্ধি করা যেতে পারে। তবে শর্ত থাকতে হবে যে, শ্রেণি কক্ষের শিক্ষা শ্রেণিকক্ষেই ফিরিয়ে আনতে হবে। কোচিং বাণিজ্য কিংবা অন্য কোনো নামে শিক্ষাকে পণ্য হিসেবে বিক্রির পথ চিরতরে রুদ্ধ করতে হবে। প্রয়োজনে আইন করে কোচিং বাণিজ্য চিরতরে বন্ধ করতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ যদি সম্ভাবনাময় তরুণ প্রজন্মকে মানসম্মত শিক্ষার মাধ্যমে মানবসম্পদে পরিণত করতে না পারে, তাহলে ডেমোগ্রাফিক ডেভিডেন্ড থেকে বঞ্চিত হতে পারে। তাই সম্মিলিতভাবে শিক্ষাক্ষেত্রে অনিয়ম-দুর্নীতি দূর করে শিক্ষাকে বিকশিত করতে হবে।

তিনি দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা স্বেচ্ছাসেবী মানসিকতাকে লালন করেন বলেই, বিনা অর্থে দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে দুর্নীতি প্রতিরোধ ও উত্তম চর্চার বিকাশে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। এটা একটা স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণ । দুর্নীতি দমন কমিশন এ জন্য আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ । জনগণের স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণ এবং সমর্থন ছাড়া দুর্নীতি প্রতিরোধের কোনো পথ নেই। তিনি ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, গণমাধ্যম, সুশীলসমাজসহ সকলকে দুর্নীতি প্রতিরোধে সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে সামাজিক আন্দোল গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন দুর্নীতি দমন কমিশনের সকল কর্মসূচিতে প্রশাসন, পুলিশ, শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ লক্ষ্যনীয় , এটি দুর্নীতি প্রতিরোধে কমিশনের অন্তর্ভুক্তিমূলক অভিগমনের সমন্বিত উদ্যোগের অংশ মাত্র।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন