শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৫:৪৭:০৪ পিএম

পরকীয়া জেনে ফেলায় সন্তানকে পুড়িয়ে হত্যা করল মা

জেলার খবর | নারায়ণগঞ্জ | শুক্রবার, ১৩ এপ্রিল ২০১৮ | ০৪:১৪:৩৯ পিএম

এ কেমন মা যিনি নিজের সন্তানকে আগুনে পুড়িয়ে মেরে ফেলতে পারেন। যে মা ১০ মাস ১০ দিন সন্তানকে নিজের গর্ভে ধরেছেন। নিজের দুগ্ধ পান করিয়ে বড় করেছেন । সেই মা কেমন করে নিজের সন্তানকে আগুনে পুড়িয়ে মারতে পারেন। তেমনি এক ঘটনা ঘটেছে নারায়নগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায়।

পরকীয়ার কথা জেনে ফেলায় প্রেমিকের সহযোগিতায় নিজের দুই শিশুসন্তানকে ঘুমন্ত অবস্থায় কাঁথায় পেঁচিয়ে গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন এক মা। এতে হৃদয় নামে তার ৯ বছরের এক ছেলে ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে তার সাত বছরের ছেলে শিহাবকে।

এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত মা শেফালী বেগমকে। তিনি নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার উচিতপুরা ইউনিয়নের বারইপাড়া গ্রামের লিবিয়া প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) সকালে শিশু হৃদয়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের সদস্যরা আরেক শিশু শিহাবকে উদ্ধার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নিয়ে গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শেফালীর সঙ্গে পাশের বাড়ির মোমেনের দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া চলছিল। বিষয়টি নিয়ে শেফালীর সঙ্গে পরিবারের লোকজনের মনোমালিন্য হয়। এ কারণে নিজ সন্তানদের হত্যার পরিকল্পনা করে শেফালী ও তার প্রেমিক।

শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) ভোররাতে মা শেফালী ও তার প্রেমিক মোমেন ঘুমন্ত অবস্থায় দুই শিশুসন্তান হৃদয় ও শিহাবকে কাঁথায় পেঁচিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। মুহূর্তের মধ্যে ঝলসে যায় দুই শিশুর দেহ।

এ সময় দুই শিশুর আর্তচিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। তবে এর মধ্যেই আগুনে পুড়ে মারা যায় হৃদয়।

গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় শিহাবকে উদ্ধার করে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করেন।

আড়াইহাজার থানার ওসি এমএ হক জানান, এ ঘটনায় দুই শিশুর মা শেফালী বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে তার প্রেমিক মোমেন পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশি অভিযান চলছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন