বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ ১০:০০:৪৬ পিএম

মুস্তাফিজদের সাথে সুযোগ পেয়ে যা বললেন মুম্বাইয়ের নতুন গতি দানব মিলনে

শিক্ষাঙ্গন | মঙ্গলবার, ১৭ এপ্রিল ২০১৮ | ০৮:০৮:২২ পিএম

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের পেসার মোস্তাফিজুর রহমান, জাসপ্রিত বুমরাহ আর নিউজিল্যান্ডের মিচেল ম্যাকক্লেনাঘ্যানের সঙ্গী হয়েছেন কিউই পেসার অ্যাডাম মিলনে। মুম্বাই তাদের পেস আক্রমণকে আরও ধারালো করতে মিলনেকে দলে টেনেছে। নতুন দলে যোগ দিয়ে কিউই এই পেসার জানালেন তার উচ্ছ্বাসের কারণ।

পয়েন্ট টেবিলে আপাতত ভালো অবস্থানে নেই মুম্বাই। বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা নিজেদের প্রথম ম্যাচে পেসারদের ডেথ ওভারেই হেরেছে। পরের ম্যাচেও তাই। আর সবশেষ নিজেদের খেলা তৃতীয় ম্যাচেও হেরেছে মুম্বাই। টেবিলের শেষ দল এখন তারা। নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে আজ বিরাট কোহলির রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটায় মাঠে নামবে মোস্তাফিজদের মুম্বাই।

এর আগে ইনজুরিতে পড়ে মুম্বাইয়ে যোগ দেয়ার আগেই ছিটকে পড়েন অস্ট্রেলিয়ান তারকা পেসার প্যাট কামিন্স। পিঠের ইনজুরিতে পড়েছেন তিনি। মোস্তাফিজদের মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে খেলা হচ্ছে না অজি এই পেসারের। জানুয়ারিতে আইপিএলের নিলামে ৫.৪ কোটি ভারতীয় রুপিতে কামিন্সকে কিনেছিল মুম্বাই। কিন্তু মৌসুমের প্রথম ম্যাচ থেকেই তাকে পায়নি দলটি। তার জায়গায় নিয়ে আসা হয় অ্যাডাম মিলনেকে।

মিলনে তার সতীর্থ মোস্তাফিজ-বুমরাহদের নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত। কোচিং স্টাফে তিনি পেয়েছেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক গতিতারকা শেন বন্ডকে। এক সাক্ষাতকারে মিলনে জানান, ‘আমি এর আগেও শেন বন্ডকে বোলিং কোচ হিসেবে পেয়েছি। ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছেন। আমার উন্নতিতে তিনি অনেক ভূমিকা রেখেছেন। মুম্বাইয়ে তাকে বোলিং কোচ হিসেবে পেয়েছি, তার মতো গ্রেট পেসারের সঙ্গে কাজ করাটা দারুণ ব্যাপার। এমন দলে জায়গা পেয়ে আমি খুবই উচ্ছ্বসিত।’

আইপিএলে এর আগেও খেলেছেন কিউই পেসার মিলনে। রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর জার্সিতে খেলেছিলেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে ৪০টি ওয়ানডে খেলা মিলনে ১৯টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। জাতীয় দলে এখনও টেস্টে অভিষেক না হলেও তার ঝুলিতে আছে ৭০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা।

নতুন সতীর্থদের নিয়ে মিলনে যোগ করেন, ‘মুম্বাইয়ের এই দলে দারুণ সব খেলোয়াড় আছে। আমরা হয়তো তাদের নিয়ে প্রথম তিন ম্যাচে ভালো ফলাফল করতে পারিনি। আমাদের চাওয়া মতো ফল না হলেও আমরা দারুণ খেলেছি। খুব শিগগিরই সতীর্থরা দলকে জেতাতে পারবে। আমাদের দলে সুপারস্টার ক্রিকেটার আছে, তাদের সঙ্গী হতে পেরে আমি খুশি। আমি তাদের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলেছি, কিন্তু একই সঙ্গে এক দলে খেলতে পারাটা ভিন্ন কিছু। তাদের সম্পর্কে দ্রুত জানতে চেষ্টা করছি, ওরা সত্যিই দারুণ সঙ্গী। একটা নতুন দলে আসলে আপনার লক্ষ্য থাকবে দলের প্রয়োজনে সাহায্য করা। মুম্বাই একমাত্র দল যারা তিনবার শিরোপা জিতেছে। আমরা আরও একবার ফাইনালে যেতে চাই এবং শিরোপা জিততে চাই। আর এমন একটি দারুণ দলের সতীর্থরা আমাকে খুব সহজেই গ্রহণ করেছে, অপেক্ষায় আছি তাদের সঙ্গে ভালো কিছু করার, ভালো কিছু সময় উপভোগ করার।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন