বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ ০২:২২:৪৭ এএম

চালকদের অসচেতনতা কারণে রাজীবের মৃত্যু : সেতুমন্ত্রী

জাতীয় | বুধবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৮ | ০৩:৩০:৫২ পিএম

রাজীবের দুর্ঘটনা খারাপ রাস্তা বা সড়ক অব্যবস্থাপনার কারণে হয়নি। এটা পরিবহন অব্যবস্থানার জন্য হয়েছে। চালকদের অসচেতনতা ও রেষারেষির কারণেই এটা হয়েছে। চালকদের আরো সচেতন হতে হবে।

বুধবার (১৮ এপ্রিল) রাজধানীর হাতিরঝিল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, একটি পত্রিকায় দেখলাম রাজীবের দুর্ঘটনার জন্য সড়ক ব্যবস্থাপনাকে দায়ী করা হয়েছে। এটা কীভাবে সড়ক ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িত? কোটা আন্দোলনের সময় যেমন ভিসির বাড়িতে হামলা হয়েছে এ ঘটনাও তেমন। ভিসি তো কোনোভাবেই কোটার সঙ্গে জড়িত নন। তাহলে তার বাড়িতে কেন হামলা হলো? রাজীবের ঘটনাটিও তেমন।

সোমবার দিনগত রাত ১২টা ৪০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজীব মারা যান।

রাজধানীর মহাখালীর সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন গত ৩ এপ্রিল বিআরটিসির একটি দোতলা বাসে দাঁড়িয়ে যাচ্ছিলেন। ওই সময় তার ডান হাতটি বাসের সামান্য বাইরে ছিল। হঠাৎ পেছন থেকে স্বজন পরিবহনের একটি বাস বিআরটিসি বাসের গা ঘেঁষে ওভারটেক করার সময় রাজীবের ডান হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পথচারীদের সহায়তায় তাকে দ্রুত শমরিতা হাসপাতালে নেয়া হয়। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

পরে ৪ এপ্রিল দুই বাসের চাপায় হাত হারানো রাজিব হাসানের চিকিৎসা ব্যয় বহনের জন্য দ্বিতল বাস মালিক বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহন মালিককে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তাকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ১ কোটি টাকা প্রদানের নির্দেশ কেন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন