বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ ০৭:০১:৫৬ পিএম

শ্রীমঙ্গলে ভুয়া প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্রের ৪ সদস্য আটক

জেলার খবর | মেীলভীবাজার | বুধবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৮ | ০৬:১৩:৫৪ পিএম

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থেকে শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে ফলাফল পরিবর্তন এবং এসএসসি ও এইচএসসি সমমানের পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসকারী চক্রের চার সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার রাতে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের বিরামপুর থেকে তাদের আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৯ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ।

আটকৃতরা হলেন, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থানার বিরাইপুর গ্রামের মো. মকবুল আলীর ছেলে মো. শওকত হোসেন (১৯), একই এলাকার মো. মকবুল আলীর ছেলে মো. সৌরভ হোসেন (২১), একই থানার শ্যামলী গ্রামের মো. আব্দুল মালেকের ছেলে মো. আব্দুল কাদির ও হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ থানার শেরপুর গ্রামের মো. কুদ্দুস মিয়ার ছেলে মো. হৃদয় মিয়া (১৭)।

বুধবার দুপুরে র‌্যাব কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলননে আলী হায়দার আজাদ জানান, চলমান এইচএসসি ও এসএসসি সমমানের পরীক্ষার প্রশ্নপত্রফাঁস ঠেকাতে ও এর সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব সারাদেশে যে গোয়েন্দা নজরদারি চালাচ্ছিল এরই ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে বেশ কয়েকদিন ধরে তাদের গতিবিধি অনুসরণ করছিল র‌্যাব-৯।

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে র‌্যাবের-৯ এর একটি বিশেষ দল তাদেরকে শ্রীমঙ্গল থানাধীন এলাকা থেকে আটক করে।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৬৯টি স্ক্রিনশট পাতা, পাঁচটি মোবাইল ফোন, নয়টি সিম কার্ড ও চারটি মেমরি কার্ড জব্দ করে র‌্যাব।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা জানান, তারা বিভিন্ন সময়ে এইচএসসি ও এসএসসিসহ সমমানের সব পরীক্ষার ফলাফল প্রতিশ্রুতি দিয়ে পরিবর্তন ও ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসের মাধ্যমে প্রতারণা করে আসছিল। এভাবেই তারা প্রতিশ্রুতির মাধ্যমে সাধারণ শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় বিপুল পরিণাম অর্থ।

তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা একথা স্বীকার করেছে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

তারা একেক সময় একেক ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে এসব কাজ করতো। এমনকি তারা সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বিভিন্ন ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার গ্রুপসহ ইমো-ভাইবারের মতো অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গ্রুপ তৈরির মাধ্যমে ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস করে অর্থ হাতিয়ে নিত বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা আলী হায়দার।

আটককৃত আসামিদের শ্রীমঙ্গল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন