শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৫:৩১:১৩ পিএম

আরব আমিরাতে ১৯ খাতে জনশক্তি রপ্তানি করবে বাংলাদেশ

জাতীয় | বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮ | ০৪:০৬:১২ পিএম

পাঁচ বছর পর সংযুক্ত আরব আমিরাতে জনশক্তি রপ্তানির পথ উন্মোচিত হয়েছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই করেছে আমিরাত। ১৯টি খাতে বাংলাদেশি কর্মী নেবে আমিরাত। সর্বনিম্ন মাসিক বেতন ৬০০ ডলার (৫০ হাজার টাকা)।

বুধবার এ বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি সই হয়েছে। এদিন থেকেই যা কার্যকর করা হয়েছে। আরব আমিরাতের রাজধানী দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত চুক্তিতে বাংলাদেশের পক্ষে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নমিতা হালদার এবং আরব আমিরাতের পক্ষে মানবসম্পদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব সাইফ আহমেদ আল সুআইদি চুক্তিতে সই করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আরব আমিরাতের মানবসম্পদবিষয়ক মন্ত্রী নাসের আল হামলি, দুবাইয়ে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ইমরান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আজহারুল হক, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. সুজায়েত উল্ল্যা, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক তারেক আহমেদ এবং দুবাইয়ে নিযুক্ত কনসাল জেনারেল এস. বদিরুজ্জামান।

প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, নারী-পুরুষ উভয় শ্রেণির কর্মী যাবেন সমঝোতা স্মারকের অধীনে। বাংলাদেশ থেকে ১৯টি ক্যাটাগরির কর্মী নিয়োগে চুক্তি সই হয়েছে। সমঝোতা স্মারকে কর্মী নিয়োগের বিধান, পদ্ধতি, রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি ও উভয় দেশের সরকারের দায়িত্ব ও কর্তব্য, কর্মীদের অধিকার, সুযোগ-সবিধা, দায়িত্ব ও কর্তব্য, নিয়োগ চুক্তির বিধান নির্ধারণ করা হয়েছে। পৃথক বিরোধ নিষ্পত্তির ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। আরব আমিরাতে কর্মীদের স্বার্থ রক্ষায় ২০১৭ সালের শ্রম আইন প্রযোজ্য হবে। সমঝোতা স্মারক বাস্তবায়নে উভয় দেশের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত যৌথ কমিটি থাকবে।

এর আগে ২০০৮ সালে বাংলাদেশ থেকে চার লাখ ২০ হাজার কর্মী নেয় আমিরাত। পরের বছরগুলোতে বার্ষিক দুই লাখের বেশি করে বাংলাদেশি কর্মী দেশটিতে যান। ২০১২ সালে দুই লাখ ১৫ হাজার কর্মী আমিরাত যান। পরের বছর থেকেই জনশক্তি রফতানি তলানিতে ঠেকে। ২০১৩ সালে ১৪ হাজার ২৪১ বাংলাদেশি কর্মী যান আমিরাতে। তাদের ১৩ হাজার ৭১০ জনই ছিলেন নারী। গত বছর মাত্র চার হাজার বাংলাদেশি কর্মী আমিরাতে গিয়েছেন; চাকরি নিয়েছেন। এর মধ্যে সোয়া তিন হাজারই নারী কর্মী।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন