বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ ১২:১৩:৪০ পিএম

ভালো ছাত্র হলেই ভালো শিক্ষক হওয়া যায় না: ইউজিসি চেয়ারম্যান

মো: নুরুজ্জামান খান | শিক্ষাঙ্গন | শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮ | ০৩:৪৯:২০ পিএম

ভালো ছাত্র হলেই ভালো শিক্ষক হওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান। আজ শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি আয়োজিত ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দায়িত্ব, কর্তব্য, অধিকার ও বিধিবিধান সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি’ বিষয়ক এক কর্মশালায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ভালো ছাত্র হলে কেবল ভালো গবেষক হওয়া যায় কিন্তু দক্ষ ও আদর্শ শিক্ষক হতে হলে তার আলাদা গুণ থাকতে হবে। একজন ভালো শিক্ষক তার শিক্ষার্থীদের নিকট কোচ স্বরুপ। কোচ দক্ষ না হলে দলের উন্নয়ন যেমন সম্ভব নয় তেমনি একজন অদক্ষ, দায়িত্ব-কর্তব্যহীন শিক্ষকের দ্বারা তার শিক্ষার্থীদের উন্নয়ন সম্ভব নয়। তিনি আরও বলেন, একজন শিক্ষকের দায়িত্ব হলো শেখানো। ছাত্র শিখবে দেশ ও জাতির কল্যাণ।

দেশের কল্যাণের জন্য একাডেমিক শিক্ষা নয়, নৈতিক শিক্ষার প্রয়োজন। আমাদের দেশের অর্থনীতিতে সবচেয়ে বেশি অবদান কৃষকদের। কিন্তু তাদের বেশির ভাগই অক্ষর জ্ঞান সম্পন্ন নয়। তারা নৈতিক জ্ঞানে গুণান্বিত। তাই সকল শিক্ষকদের উচিত তাদের শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষা প্রদান করা।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মো. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, রাবির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এম সাইদুর রহমান খান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা প্রমুখ। মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন, বর্তমানে বেশির ভাগ শিক্ষক- শিক্ষার্থীর মধ্যে বন্ধত্বপূর্ণ সম্পর্ক নেই।

ছাত্র শিক্ষকের সম্পর্ক হবে মধুর। এই সম্পর্ক তৈরিতে শিক্ষকদের বড় অবদান রাখতে হবে। ছাত্ররা শিখবেন আর শিক্ষক শিখাবেন এটাই নিয়ম। সেই শিক্ষা হবে নীতি, আদর্শ, দায়িত্ব-কর্তব্য ও দেশপ্রেম। উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহান বলেন, আমার শিক্ষার্থীরা আজ উচ্চশিক্ষিত জাতি হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। তারা কতোটা নৈতিক হচ্ছে তা আমি জানি না।

একটি সন্তানকে নৈতিকতা শিক্ষা দিতে হলে বাবা-মাকে উচ্চশিক্ষিত হতে হবে তা নয়। নিরক্ষর হলেও সন্তানকে নৈতিকতা শিক্ষা দেওয়া যায়। আমি উপাচার্য হিসেবে সকল শিক্ষকদের আহ্বান জানাবো আপনারা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীদের দেশ ও জাতির কল্যাণের জন্য তৈরি করুন।

সমিতির সদস্য অধ্যাপক মুর্শিদা ফেরদৌস বিনতে হাবীব’র সঞ্চালনায় কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য দেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রুহুল আমিন। কর্মশালায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের দায়িত্ব ও কর্তব্য এবং শিক্ষকতা সংশ্লিষ্ট বিধিবিধান ও শিক্ষকদের অধিকার নিয়ে তিনটি একডেমিক অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন