বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ ১০:০০:১৮ পিএম

পরিচয় নিশ্চিত হয়ে বৃদ্ধার পা কেটে দিল দুর্বৃত্ত

জেলার খবর | বাগেরহাট | শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮ | ০৮:২৭:১২ পিএম

বাগেরহাটের শরণখোলায় হোসনে আরা বেগম মঞ্জু (৭০) নামে এক নারীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।
শুক্রবার সন্ধ্যায় শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের কালিবাড়ি গ্রামের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে । পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও হামলাকারীদের এখনও সনাক্ত করতে পারেনি। হোসনে আরা বেগম মঞ্জু শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের কালিবাড়ি গ্রামের নুরুল ইসলাম ফকিরের স্ত্রী। তার ছেলে ফকির মোস্তফা কামাল সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা ছিলেন।
শনিবার দুপুরে পরিবারের বরাত দিয়ে শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কবিরুল ইসলাম জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হোসনে আরা বেগম বাড়ির উঠানে হাটাহাটি করছিলেন। এসময় অজ্ঞাত এক ব্যক্তি হঠাৎ করে তাদের বাড়িতে এসে হোসনে আরাকে বলেন আমি তোমার ছেলের জন্য ঢাকায় থাকতে পারলাম না এ কথা বলেই তিনি তার ব্যাগ থেকে একটি ধারালো অস্ত্র বের করে পা লক্ষ্য করে কোপ দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান। এতে তার বাম পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে তার চিৎকারে স্বামী নুরুল ইসলাম ঘর থেকে ছুটে এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। কেন কী কারণে ওই অজ্ঞাত ব্যক্তি হোসনে আরার উপর হামলা চালিয়েছে তা খতিয়ে দেখতে পুলিশ অনুসন্ধানে নেমেছে।
হোসনে আরার দুই ছেলে। এক ছেলে ফকির মোস্তফা কামাল সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা ছিলেন। মোস্তফা কামাল বর্তমানে ঢাকায় পোষাক ব্যবসা করেন অন্যজন প্রবাসী বলে জানান ওসি কবিরুল।
শরণখোলা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার সমাদ্দার বলেন, হোসনে আরা বেগমের বা পায়ের হাঁটুর নিচ শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় তার অবস্থা সংকটাপন্ন । তাই তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন