মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৯:৩২:০৮ পিএম

দুষ্টুমি করায় ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো শিক্ষক

জেলার খবর | কুমিল্লা | রবিবার, ২২ এপ্রিল ২০১৮ | ১০:৩২:০৯ পিএম

কুমিল্লায় দুষ্টুমি করার অপরাধে সহিদুল (১২) নামে এক ছাত্রকে নির্মমভাবে পিটিয়ে তার পুরো শরীর ক্ষত-বিক্ষত ও রক্তাক্ত করে দিয়েছেন শিক্ষক।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় রোববার সকালে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনা ঘটেছে জেলার দাউদকান্দি উপজেলার গৌরিপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর জামিয়া ইসলামিয়া মদিনাতুল উলুম মাদরাসায়। ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন ওই মাদরাসার অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ আবু ইউসুফ।

মাদরাসা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দাউদকান্দি আটিপাড়া গ্রামের মৃত আবুল ফয়েজের ছেলে সহিদুল ইসলামকে দুই বছর আগে ওই মাদরাসার হেফজ বিভাগে ভর্তি করা হয়।

সহিদুলের মা আয়েশা বেগম ও মামা মিজানুর রহমান জানান, রোববার সকালে তাদের বাড়িতে খবর আসে মাদরাসার ছাত্রদের সঙ্গে দুষ্টুমি করার অপরাধে শিক্ষক হাফেজ আবু ইউসুফ শনিবার সকালে সহিদুলকে নির্মমভাবে প্রহার করেছেন। কিন্তু শনিবার দিন ও রাতে তার কোনো চিকিৎসা না হওয়ায় সে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

রোববার সকাল ৯টার দিকে তাকে আমরা গৌরিপুর হাসপাতালে ভর্তি করি। ডাক্তাররা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পরামর্শ দেন। পরে তাকে বিকেলে কুমিল্লা নগরীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে এনে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও চিকিৎসা দেয়া হয়।

গৌরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. জালাল হোসেন জানান, সকালে আহত শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার পুরো শরীরে জখম রয়েছে। কিন্তু শিশুটির বমি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢামেকে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল আমিন জানান, বিষয়টি অত্যন্ত নিষ্ঠুরতম ও দুঃখজনক। এ বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন থেকে সব ধরনের সহায়তা দেয়ার বিষয়ে আহত ওই শিশুর পরিবারকে আশ্বস্ত করা হয়েছে।

সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান জানান, হাসপাতালে শিশুটিকে ভর্তির পরই পুলিশ এ বিষয়টি জানতে পেরে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করতে অভিযান চালায়। কিন্তু ঘটনাটি জানাজানি হওয়ায় এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে শিক্ষক। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও ওসি জানিয়েছেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন