শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ ০৬:৫৯:১৫ পিএম

সিনেমায় আসছে নেপালের বিমান দুর্ঘটনা

বিনোদন | মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ | ০২:৫১:৩২ পিএম

বছর দেড়েক ধরে সেন্সর বোর্ডে আটকে থাকা ও সম্প্রতি আদালতের নির্দেশনা পাওয়া সিনেমা ‘হৃদয়ের রংধনু’ নিয়ে সোমবার সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করেন পরিচালক রাজিবুল হোসেন। সেখানেই নতুন ঘোষণা দিয়ে চমকে দিলেন তিনি।

রাজিবুল জানালেন, পরবর্তী সিনেমার শিরোনাম ‘রানওয়ে ২০/০২’ বা ‘রানওয়ে টু জিরো জিরো টু’। সম্প্রতি নেপালে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনার কাহিনি নিয়ে নির্মিত হবে সিনেমাটি।

১২ মার্চ নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার ফ্লাইট বিধ্বস্ত হলে ২৬ জন বাংলাদেশি, ২২ জন নেপালি ও একজন চীনা নাগরিক নিহত হন।

‘রানওয়ে ২০/০২’র চিত্রনাট্য করছেন হাবিব জাকারিয়া। সব কিছু পরিকল্পনা মতো চললে এটিই হবে বিমান দুর্ঘটনা নিয়ে ঢালিউডের প্রথম সিনেমা।

অনুষ্ঠানে রাজিবুল হোসেন বলেন, ‘‘রোববার আমরা উচ্চ আদালতের নির্দেশনা আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ সেন্সর বোর্ডে জমা দিয়েছি। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ‘হৃদয়ের রংধনু’র বিষয়ে সুরহা করতে হবে।”

নতুন ছবি নিয়ে বলেন, “সেন্সর বোর্ড ছবি আটকে রাখতে পারে, কিন্তু ছবির পরিচালককে নয়। তাই আমি আমার নতুন ছবির ঘোষণা দিচ্ছি। আমার নতুন ছবির নাম ‘রানওয়ে ২০/০২’।”

ঢাকা ক্লাবের ওই সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও চলচ্চিত্র বিশ্লেষক ফাহমিদুল হক, মুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি বেলায়েত মামুন, নির্মাতা রিয়াজুল রিজু ও নোমান রবিনসহ অনেকে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা ‘হৃদয়ের রংধনু’ প্রথম দেখেন। এরপর চলচ্চিত্রটিকে দেশের পর্যটন শিল্পের জন্য ‘হুমকি’ মনে করে বোর্ড। পরে ২০১৭ সালের ২৯ আগস্ট আটটি সংশোধনী দিয়ে প্রযোজক-পরিচালক বরাবর চিঠি দেয় সেন্সর বোর্ড।

অভিযোগের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে পরের মাসে ৮ সেপ্টেম্বর পুনরায় সেন্সর বোর্ডে ছবিটি জমা দেওয়া হয়। পরে ১০ অক্টোবর আবার প্রিভিউ হয়।

তবে সেন্সর বোর্ড কোনো সিদ্ধান্ত না দেওয়ায় আইনি বিজ্ঞপ্তি (লিগ্যাল নোটিশ) পাঠান পরিচালক। ওই বিজ্ঞপ্তির কোনো জবাব না দেওয়ায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদেশ দেন আদালত।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন