মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৮:০৪:০৯ পিএম

দ্বাদশ আইপিএল আমিরাতে!

খেলাধুলা | বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ | ০৪:১৮:০২ পিএম

ভারতের ১৭তম লোকসভা গঠনের জন্য সাধারণ নির্বাচন হবে ২০১৯ সালে। এ কারণে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ১২তম আসরের ভেন্যু সরিয়ে নেয়া হতে পারে।

প্রাথমিক পর্যায়ে ভেন্যু ধরা হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে। এমন সিদ্ধান্ত নিতে হতে পারে বলে নিজেদের তৈরি রাখছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

আইপিএলের পরের আসরটি হবে আগামী বছরের ২৯ মার্চ থেকে ১৯ মে পর্যন্ত। আর এই সময়েই দেশটিতে হতে পারে সাধারণ নির্বাচন। সূচির সঙ্গে নির্বাচনের ক্ষণ সাংঘর্ষিক হওয়ায় বদলে যেতে পারে আইপিএলের পরের ভেন্যু।

সেক্ষেত্রে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে (ইউএই) বেছে নিচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (বিসিসিআই)।

বিসিসিআইর একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা পিটিআইকে এ কথা বলেছেন, পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার পর আমরা একটা সিদ্ধান্ত নেব। কিন্তু যে কোনও ধরনের ঘটনার জন্য আমরা তৈরি আছি। যদি আইপিএল ভেন্যু সরিয়ে নেয়ার প্রয়োজন পড়ে, সেক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

আরব আমিরাতের তিন ভেন্যু শারজা, দুবাই ও আবুধাবি সাফল্যের সঙ্গে বিভিন্ন সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজন করেছে। ভারতের এই ব্যয়বহুল প্রতিযোগিতার সপ্তম আসরের একাংশও হয়েছিল এই দেশে। ওই কর্মকর্তা আরও যোগ করেন, ইউএই এর সময়টা ভারতীয় দর্শকদের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার মতো।

এর আগে সাধারণ নির্বাচনের কারণে দুইবার আইপিএল সরিয়ে নেয়া হয়েছিল ভারত থেকে। ২০০৯ সালে পুরো টুর্নামেন্ট হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকায়। চার বছর আগে লিগের প্রথম ভাগ খেলা হয় আরব আমিরাতে।

এ বি ডিভিলিয়ার্সের দেশ দক্ষিণ আফ্রিকায় আইপিএল নিয়ে যাওয়া কঠিন হবে সময়ের ব্যবধান ও যাতায়াতের দূরত্ব অনেক বেশি হওয়ার জন্য। সে দিক দিয়ে দুবাই ও তার কাছের মরু শহরগুলিতে প্রতিযোগিতা হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আরব আমিরাতের সঙ্গে ভারতে ম্যাচ সম্প্রচারের সেরা সময়ের মিল বেশি।

সংযুক্ত আর আমিররাতে দুবাই, শারজা এবং আবু ধাবি এ তিনটি জায়গায় ক্রিকেট খেলা হয়। তবে অতীতে শারজায় নিয়মিতভাবে ক্রিকেট খেললেও দাউদ ইব্রাহিমের উপস্থিতি এবং গড়াপেটার অভিযোগকে কেন্দ্র করে সেখানে খেলা বন্ধ করে দিয়েছিল।
আগামী ৩১ মে লর্ডসে আইসিসি একাদশ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচে খেলার জন্য ভারতীয় বোর্ড দীনেশ কার্তিক এবং হার্দিক পান্ডিয়াকে পাঠাচ্ছে।

গত বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজে হারিকেনের দাপটে নষ্ট হওয়া স্টেডিয়ামের জন্য ত্রাণ তহবিল গড়ার পরিকল্পনা নিয়েছে আইসিসি। অর্থ সংগ্রহ করার জন্য আয়োজন করা হচ্ছে এই ম্যাচের। বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত সচিব অমিতাভ চৌধুরি বুধবার জানান, হার্দিক এবং কার্তিককে পাঠানো হচ্ছে। পাকিস্তান থেকে শহিদ আফ্রিদি, শোয়েব মালিক এবং শ্রীলঙ্কা থেকে থিসারা পেরেরা এই ম্যাচে খেলবেন। বাংলাদেশ থেকে যাচ্ছেন সাকিব আল হাসান এবং তামিম ইকবাল।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন