বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ ০৯:৫৮:২৪ এএম

চীনা বিশ্ববিদ্যালয়ে গ্রেনেড নিক্ষেপ প্রতিযোগিতা

আন্তর্জাতিক | বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ | ০৬:২৮:১৪ পিএম

চীনের একটি বিশ্ববিদ্যালয় তাদের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় এবার অন্তর্ভুক্ত করেছে নতুন একটি খেলা; যার নাম গ্রেনেড নিক্ষেপ প্রতিযোগিতা।

চীনা একটি পত্রিকার খবর অনুযায়ী, উত্তরাঞ্চলীয় একটি প্রদেশের নর্থ ইউনিভার্সিটি অফ চায়না এ উদ্যোগ নিয়েছে।

আগামী মাসে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড ইভেন্টে নতুন এ খেলাটি রাখা হচ্ছে যাতে ৫০০ গ্রাম ওজনের গ্রেনেড ছুঁড়ে মারবেন প্রতিযোগীরা। লি জিয়ান শি নামে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক জানান তারা লক্ষ্য করেছেন এক সময়ের জনপ্রিয় গোলক নিক্ষেপ প্রতিযোগিতার দিকে শিক্ষার্থীদের তেমন কোন আগ্রহ আর নেই।

আরও পড়ুন : সেনা অভ্যুত্থানের হুমকিতে ইরান?

এখন গ্রেনেড ছোঁড়া প্রতিযোগিতার ঘোষণা দেয়ার পর অনেকই আগ্রহী হয়ে তার নাম নিবন্ধন করেছে। তিনি বলেন, কেউ কেউ দেরীতে আসার কারণে নিজের নাম নিবন্ধন করাতে পারেনি, সেজন্য তাদের খুবই হতাশ মনে হয়েছে।

চীনা ওই পত্রিকাটি বলছে উ জিয়াংহ্যাং নামের একজন ছাত্রের কাছ থেকেই শুরুতে আইডিয়াটি এসেছিলো। সে নিজেই চিঠি লিখে এ ধরনের নতুন কার্যক্রমের প্রস্তাব দেয়।

পত্রিকাটি লিখেছে, সাংবাদিকদের সে বলেছে সে বিভিন্ন জিনিস ছুঁড়ে মারতে পছন্দ করে। কিন্তু গত বছর প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়ে সে বুঝতে পারে যে গোলক নিক্ষেপণ খেলাটির সঙ্গে সে একদমই মানাতে পারছে না।

আরও পড়ুন : মিয়ানমারের ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা আনছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

কিন্তু প্রতিযোগিতায় তারা যে গ্রেনেডটি ছুঁড়বেন সেটি আসলে একটি রেপ্লিকা এবং এটি কাঠের একটি দণ্ডের সাথে সংযুক্ত থাকবে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মানরা এভাবে গ্রেনেড ছুঁড়ে মারতো এবং পরে সেটি চীনা সামরিক বাহিনীও চর্চা করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় বলছে এটি শুধু দেখানোর জন্য নয়, এর মাধ্যমে ইতিহাসকে জানারও একটি সুযোগ ঘটবে শিক্ষার্থীদের জন্য। নর্থ ইউনিভার্সিটি অফ চায়না যখন প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৪১ সালে তখন এর নাম ছিলো তাইহাং ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্কুল এবং এটি ছিলা পিপলস লিবারেশন আর্মির একটি ঘাঁটি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন